অনির্দিষ্ট কালের জন্য স্থগিত হয়ে গেছে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের ইউটিউব অ্যাকাউন্ট।একই সঙ্গে সাবেক প্রেসিডেন্টের আইনজীবী রুডি গিলিয়ানির ইউটিউবে তথ্য হালনাগাদ করার বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন মিডিয়ায় এসেছে এ খবর। খবর এনডিটিভির।

সপ্তাহখানেক আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলো ট্রাম্পের বিভিন্ন অ্যাকাউন্টের ওপর নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ আরো বাড়ানোর কথা ঘোষণা করেছিল। এসব চ্যানেলে ট্রাম্পের লাখ লাখ ফলোয়ার ও সাবস্ক্রাইবার ছিল। এক সপ্তাহ পরে ইউটিউব থেকেও এ ঘোষণা এল। ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটল হিলে ট্রাম্প সমর্থকদের তাণ্ডব এবং তাতে ট্রাম্পের প্রশ্রয়ের প্রতিবাদ হিসেবে এসব নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে।

গুগলের মালিকানাধীন ইউটিউব অবশ্য সবার শেষে ট্রাম্পের বিষয়ে পদক্ষেপ নিয়েছে। এর আগে বড় বড় সব যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবস্থা নিলেও ইউটিউব চুপ করেই ছিল। তবে এ জন্য তাদের বিভিন্নভাবে সমালোচিতও হতে হয়েছে।

ইউটিউব কর্তৃপক্ষের একজন মুখপাত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের পলিটিকো পত্রিকার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সম্প্রতি নানাধরনের সহিংসতা ছড়ানোর জেরে ডোনাল্ড ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত রাখা হয়েছে। একই সঙ্গে ট্রাম্পের আইনজীবী রুডি গিলিয়ানির ওপর আরোপিত ব্যবস্থার কথাও উল্লেখ করা হয়।

৭৬ বছর বয়সী ট্রাম্প তার অ্যাকাউন্টে বাইডেনের পারিবারিক কুৎসা ও যুক্তরাষ্টের সদ্য অনুষ্ঠিত নির্বাচনে নিয়ে আপত্তিকর ভিডিও পোস্ট করেছিলেন। সারা বিশ্বে তার চ্যানেলের ৬ কোটি সাবস্ক্রাইবার ছিল। তারই জেরে ইউটিউব প্রথমে কোনোরকম প্রতিক্রিয়া না দেখালেও সমালোচনার কারণে শেষ পর্যন্ত এ ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হয়েছে।