সারাদেশে চিকিৎসক-নার্সসহ ৭২৭ জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। যা মোট আক্রান্তের ১১ দশমিক ২৫ শতাংশ। করোনা সংক্রমণের ৫২তম দিনে এসে এতো সংখ্যক চিকিৎসাকর্মী আক্রান্তের ঘটনায় উদ্বেগের সৃষ্টি হয়েছে।

চিকিৎসকদের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) চিকিৎসক-নার্সসহ স্বাস্থ্যকর্মীদের আক্রান্ত হওয়ার তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করছে।

সংগঠনের মহাসচিব ডা. ইহতেশামুল হক চৌধুরী বলেন, আক্রান্তদের মধ্যে চিকিৎসক ৩১৬ জন, নার্স ১৪৮ জন এবং মেডিকেল টেকনোলজিস্টসহ অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছেন ২৬৩ জন।

বিএমএস মহাসচিব জানান, সর্বোচ্চ আক্রান্ত ঢাকায় ৫৪৮ জন। তাদের মধ্যে চিকিৎসক ২৩১ জন, নার্স ১২৪ জন এবং স্বাস্থ্যকর্মী ১৯৩ জন। বরিশালে চিকিৎসক ১৩ জন, নার্স ২ জন এবং স্বাস্থ্যকর্মী ৭ জন, চট্টগ্রামে চিকিৎসক ১৩ জন, স্বাস্থ্যকর্মী ৭ জন, খুলনায় চিকিৎসক ১০ জন এবং স্বাস্থ্যকর্মী ৫ জন, রংপুরে চিকিৎসক ৫ জন, নার্স ২ জন এবং স্বাস্থ্যকর্মী ৪ জন, সিলেটে চিকিৎসক ৭ জন, নার্স ২ জন এবং স্বাস্থ্যকর্মী ৭ জন, ময়মনসিংহে চিকিৎসক ৩৬ জন, নার্স ২১ জন এবং ৩৮ জন স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের মধ্যে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের এক চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে এ পর্যন্ত চিকিৎসক-নার্সসহ ৩০ স্বাস্থ্যকর্মী আক্রান্ত হয়েছে জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীর জামাল উদ্দিন।

পরিচালক জানান, আক্রান্তদের মধ্যে চিকিৎসক ৮ জন, নার্স ১৬ জন, ওয়ার্ড মাস্টার ২ জন, ওয়ার্ড বয় ৩ জন এবং একজন আনসার সদস্য আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের সংস্পর্শে থাকায় ১৫ চিকিৎসক ও ৩৭ নার্সকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে বলে জানান পরিচালক।