মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার থেকে কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটে অভিশংসন অভিযোগের শুনানি শুরু হবে। এর আগে শনিবার অভিযোগের সপক্ষে ডেমোক্র্যাটদের যুক্তিতর্ক সংবলিত ১১১ পৃষ্ঠার নথি জমা দেয়া হয়েছে।

ওই অভিশংসনপত্রে ট্রাম্পকে জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি হিসেবে অ্যাখ্যা দিয়ে তাকে পদচ্যুত করা হবে বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন ডেমোক্র্যাটরা। এর জবাবে প্রেসিডেন্টের আইনজীবী দল বলেছে, সিনেটে প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিশংসনের অভিযোগগুলোকে গণতন্ত্রের ওপর ‘বিপজ্জনক আক্রমণ’।

মামলায় বাদীপক্ষ প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে অপরাধের সুস্পষ্ট অভিযোগ আনতে ব্যর্থ হয়েছে এবং এ প্রক্রিয়া আদতে চলতি বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপের ‘নির্লজ্জ’ চেষ্টা বলেও মন্তব্য করেছে তারা। খবর বিবিসি ও রয়টার্সের।

হোয়াইট হাউসের কাউন্সেলর প্যাট সিপোলোনে ও ট্রাম্পের ব্যক্তিগত আইনজীবী জে সেকুলোর নেতৃত্বাধীন দলটি শনিবার দেয়া প্রথম আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়ায় এভাবেই প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলোর কড়া সমালোচনা করে।

যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে ট্রাম্প হচ্ছেন তৃতীয় প্রেসিডেন্ট, যাকে অভিশংসন নিয়ে সিনেটে বিচারের মুখোমুখি হতে হচ্ছে। তার বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহার ও কংগ্রেসের কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগ এনেছে ডেমোক্র্যাট নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদ। রিপাবলিকান এ প্রেসিডেন্ট অবশ্য শুরু থেকেই কোনো ধরনের অন্যায়ে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করে আসছেন।

অভিশংসন মামলাকে ‘ধাপ্পাবাজি’ বলেও অ্যাখ্যা দিয়েছেন তিনি। রিপাবলিকান সংখ্যাগরিষ্ঠ সিনেটের সদস্যরা অভিশংসন মামলায় জুরির দায়িত্ব পালন করবেন। বিচারে ট্রাম্পকে দোষী সাব্যস্ত করে প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হবে কিনা, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন তারা।

শনিবার জমা দেয়া প্রতিনিধি পরিষদের ডেমোক্র্যাট প্রতিনিধিদের ১১১ পৃষ্ঠার সংক্ষিপ্ত যুক্তিতর্কে ‘বিশ্বস্ততার সঙ্গে আইন মেনে চলার শপথ ভঙ্গকারী ও জনসাধারণের আস্থার সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা’ করা প্রেসিডেন্টকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়ার অনুরোধ করা হয়। ট্রাম্পের কর্মকাণ্ডকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠাতাদের জন্য ‘সবচেয়ে বাজে দুঃস্বপ্ন’ বলেও অভিহিত করেছেন তারা।

জানায়, ‘আমাদের গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ ও জাতীয় নিরাপত্তার গুরুতর ও দীর্ঘমেয়াদি ক্ষতি এড়াতে প্রেসিডেন্টকে দোষী সাব্যস্ত করা ও দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া উচিত। মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে উত্থাপিত মামলাটি সরল, ঘটনাগুলো বিতর্কের ঊর্ধ্বে, প্রমাণও যথেষ্ট।’

অভিশংসনের অভিযোগের সপক্ষে ডেমোক্র্যাটদের যুক্তিতর্ক সংবলিত নথি জমা দেয়ার পর প্রেসিডেন্টের আইনজীবী দল ৬ পৃষ্ঠার একটি প্রতিক্রিয়া দিয়েছে। ওই প্রতিক্রিয়াকেই বিচারে তাদের অবস্থানের সারমর্ম হিসেবে দেখা হচ্ছে।

সিপোলোনে ও সেকুলো নেতৃত্বাধীন দলটি তাদের প্রতিক্রিয়ায় বলেছে, বিচারে তারা অভিশংসনের অভিযোগগুলোকে প্রক্রিয়াগত ও সাংবিধানিক উভয় দিক থেকেই মোকাবিলা করবেন।

প্রেসিডেন্ট কোনো অন্যায় তো করেনইনি, উল্টো তার সঙ্গেই যে অন্যায্য আচরণ করা হয়েছে শুনানিতে তা-ও খোলাসা করা হবে বলে জানিয়েছেন তারা। প্রতিনিধি পরিষদের ডেমোক্র্যাটদের আনা অভিশংসনের অভিযোগ ‘অবাধে প্রেসিডেন্ট বেছে নেয়ার মার্কিন জনগণের অধিকারের ওপর বিপজ্জনক আক্রমণ’, বলেছে ট্রাম্পের এ আইনজীবী দল।

তারা বলেছে, ‘২০১৬ সালের নির্বাচনী ফল পাল্টে দেয়া এবং কয়েক মাস পর হতে যাওয়া ২০২০ সালের নির্বাচনে হস্তক্ষেপের একটি নির্লজ্জ ও বেআইনি চেষ্টা এটি।’ ট্রাম্প ‘সুনির্দিষ্ট করে ও দ্ব্যর্থহীনভাবে’ তার বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করছেন বলেও আইনজীবীরা জানিয়েছেন।

অভিশংসনের অভিযোগগুলোতে প্রেসিডেন্টের ‘কোনো অপরাধ কিংবা আইনের লংঘনের’ পক্ষে যুক্তি হাজিরে ব্যর্থ হয়েছে বলেও মত ট্রাম্প ও তার আইনজীবীদের। তাদের ভাষ্য, এটা একটি বিশৃঙ্খল প্রক্রিয়ার ফসল যা স্বাভাবিক প্রক্রিয়া ও মৌলিক ন্যায্যতাকে লংঘন করেছে।

ট্রাম্প সিনেটের বিচারে তার পক্ষে লড়তে শুক্রবার আট সদস্যের আইনজীবী দল চূড়ান্ত করেছেন। প্রেসিডেন্টের এ আইনজীবী দলে পূর্বসূরী বিল ক্লিনটনের অভিশংসন বিচারের সময় প্রেসিডেন্টের পক্ষে থাকা আইনজীবীকেও রাখা হয়েছে।