যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পেনসিলভানিয়াতে ডাকযোগে আসা ভোট বাতিলের দাবিতে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রচার শিবিরের করা মামলা খারিজ করে দিয়েছেন ফেডারেল আদালত। 

ট্রাম্প শিবিরের পক্ষ থেকে এই অঙ্গরাজ্যে ভোটের ফলাফল সার্টিফাই করার ওপর স্থগিতাদেশ চাওয়া হয়।শনিবার ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রচারণা দলের দায়ের করা মামলাটি খারিজ করে দিয়েছেন পেনসিলভানিয়ার ফেডারেল আদালত। খবর বিবিসির

পেনসিলভানিয়াতে ট্রাম্পের চেয়ে ৮০ হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে থেকে জয় পেয়েছেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। ট্রাম্পের মামলা আদালতে খারিজ হয়ে যাওয়ায় এ রাজ্যে বাইডেনকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিজয়ী ঘোষণা করতে আর বাধা থাকল না। 

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হতে পুরো দেশে ৫৩৮টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোটের অন্তত ২৭০টি পেতে হয়। এর মধ্যে ২০ ইলেকটোরাল ভোটের রাজ্য পেনসিলভেইনিয়ায় জয় নিশ্চিত হওয়ায় গত ৭ নভেম্বর বাইডেনের হোয়াইট হাউজ নিশ্চিত হয়ে যায়।

সব রাজ্যের ভোট গণনা শেষে বাইডেন পেয়েছেন ৩০৬ ইলেকটোরাল ভোট, আর ২৩২ ইলেকটোরাল ভোট ট্রাম্পের পক্ষে গেছে। নির্বাচনে হার স্বীকার করতে নারাজ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ভোট জালিয়াতির অভিযোগ করে এলেও কোনো প্রমাণ তিনি দেখাতে পারেননি।

শনিবার ফেডারেল আদালতের বিচারক ম্যাথিউ ব্র্যান লিখেছেন, ট্রাম্প শিবির আদালতকে প্রায় ৭০ লাখ ভোটারকে অধিকার বঞ্চিত করতে বলেছে।

তিনি বলেন, নির্বাচনী প্রতিযোগিতায় বাদীরা যে কঠোর প্রতিকার চেয়েছে, তেমন কোনও ঘটনা খুঁজে পায়নি এই আদালত।

বিচারক বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ষষ্ঠ জনবহুল অঙ্গরাজ্যকে বাদ দেন, এখানে একজন ভোটারকেও অধিকার বঞ্চিত করা যায় না। আমাদের জনগণ, আইন এবং প্রতিষ্ঠানগুলোর দাবি আরও বেশি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here