বছর ঘুরে ফিরে এল শীতের আমেজ। কিন্তু হিম হিম ঠান্ডা হাওয়ার দাপটে এই সময় ত্বক হয়ে ওঠে রুক্ষ-শুষ্ক ও টানটান। এই ঠান্ডা হাওয়ার প্রভাব শুধু শরীরেই পড়ে না, পায়ের উপরেও এর প্রকোপ ভীষণ। তাই ঋতু পরিবর্তনের সময়টাতে নিজের ত্বকের যত্নের দিকেও একটু সময় বেশি দিতে হবে। এই শীতের রুক্ষতা আর শুষ্কতার কারণে আমাদের অনেকেরই পা ও পায়ের গোড়ালি ফাটে। যত্ন না নিলে এটা আরও মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারে।

তাই শীতে পায়ের যত্নে যা করবেন- খুব ঠান্ডা আবহাওয়ায় পায়ে মোজা পরুন। প্রতিদিন গোসল বা পা ভেজানোর পর শুকনো তোয়ালে বা কাপড় দিয়ে ভালো করে মুছে নিন। গোড়ালি ও তালুতে পেট্রোলিয়াম জেলি বা গ্লিসারিন মাখুন। বিশেষ করে রাতের বেলা ঘুমানোর আগে অবশ্যই গোড়ালি ও তালুতে পেট্রোলিয়াম জেলি বা গ্লিসারিন মাখুন। কুসুম গরম পানি নিয়ে তাতে কয়েক ফোঁটা শ্যাম্পু ও চন্দন তেল মেশান। নিমপাতাও দিতে পারেন। কিছুক্ষণ পা ডুবিয়ে বসে থাকুন। পিউমিক স্টোন দিয়ে গোড়ালি, পায়ের পাতা ঘষলে মৃত কোষ উঠে যাবে।

গরম পানি, লেবুর রস, নুন, গ্লিসারিন মেশান এবং গোলাপ জল মেশান। ২০ মিনিট পা ডুবিয়ে রাখুন। পায়ে স্ক্রাবিংও করতে পারেন। ওটমিল, আমন্ড অয়েল, সৈন্ধব লবণ, মধু, চালের গুঁড়া ও পুদিনা তেল মিশিয়ে নিন। প্রতিদিন মিশ্রণটি লাগালে পায়ের পাতা ও গোড়ালি নরম থাকবে।

এছাড়া ক্যাস্টর অয়েল, আমন্ড অয়েল ও অলিভ অয়েল মিশিয়ে রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে ভাল করে মাসাজ করতে পারেন। হাল্কা আঁচে মোম গরম করে ব্রাশ ডুবিয়ে ফাটা অংশে লাগিয়ে রাখুন। ঠান্ডা হলে সুতির মোজা পরে নিন। পরদিন সকালে গোড়ালি পরিষ্কার করে নিন। লেবুর রসের সঙ্গে দু’চামচ চিনি মেশান। লেবুর খোসায় মিশ্রণটি নিয়ে গোড়ালিতে ঘষতে থাকুন। চিনি গলে না যাওয়া পর্যন্ত এটা করতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here