বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদকঃ সাস্টেইনেবল ফাইন্যান্সের ক্ষেত্রে গ্রীন বন্ডের বাইরে ব্লু বন্ড এবং সুকুক নিয়েও কাজ করছে কমিশন। মনিটরিং এবং সুপারভিশন বৃদ্ধির পাশাপাশি টেকসই উন্নয়নের ক্ষেত্রে সকল স্টেক হোল্ডারদের মানসিকাতায় পরিবর্তন আনতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কমিশনার ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ।

বুধবার (৭ এপ্রিল) বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেটে (বিআইসিএম) আয়োজিত “ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন সাস্টেইনেবল ফাইন্যান্স এন্ড ইনভেস্টমেন্ট ২০২১” শীর্ষক দুইদিন ব্যাপী আন্তর্জাতিক ভার্চুয়াল সম্মেলন শেষ হয়েছে। সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, স্টেক হোল্ডারদের মানসিকতায় পরিবর্তনে বিআইসিএম সহ সংশ্লিষ্ট শিক্ষা, গবেষণা ও ট্রেনিং প্রতিষ্ঠানগুলো গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা রাখতে পারে

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শন কিডনী, কো-ফাউন্ডার ও সিইও, ক্লাইমেট বন্ডস ইনিশিয়েটিভ; রিকো ঝ্যাং, সিনিয়র ডিরেক্টর, এশিয়া প্যাসিফিক, ইন্টারন্যাশনাল ক্যাপিটাল মার্কেট অ্যাসোসিয়েশন। এখানে, ভিডিও বার্তার মাধ্যমে শুভেচ্ছা জানান, বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন।

সমাপনী সেশনে “Redesigning the financial architecture of Bangladesh: An action plan” বিষয়ের উপর মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেটের নির্বাহী প্রেসিডেন্ট অধাপক ড. মাহমুদা আক্তার এবং পরিচালক (স্টাডিজ) ওয়াজিদ হাসান শাহ।

বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেটের নির্বাহী প্রেসিডেন্ট অধাপক ড. মাহমুদা আক্তার কোভিড পরিস্থিতির মাঝেও সুষ্ঠুভাবে সম্মেলন আয়োজন এবং অংশগ্রহণের জন্য সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সম্মেলনটি সমাপ্ত ঘোষণা করেন।

ঢাকা/এইচকে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here