আর্জেন্টাইন ফুটবল কিংবদন্তি ডিয়েগো ম্যারাডোনার ‘হ্যান্ড অব গড’-র কথা মনে আছে? ১৯৮৬ সালের ফুটবল বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল ম্যাচ, ইংল্যান্ডের বিপক্ষে লাফিয়ে উঠে হেডে করেছিলেন লক্ষ্যভেদ। অফিসিয়াল স্কোরকার্ডে লেখা আছে হেড দিয়েই গোল করেছিলেন ম্যারাডোনা।

কিন্তু সত্যটা হলো, বল এতটাই উঁচুতে ছিল যে মাথা দিয়ে তা ছোঁয়ার সাধ্য ছিল না ম্যারাডোনার। তাই লাফিয়ে ওঠার পর হাত দিয়েই সেটিকে জালে ঢোকান তিনি। গোলরক্ষক সঙ্গে সঙ্গে বুঝেছিলেন সেটি, কিন্তু ধরতে পারেননি রেফারি। ফলে গোল পেয়ে যান ম্যারাডোনা।

অনেকের মতেই ইতিহাসের অন্যতম নিকৃষ্ট জোচ্চুরির ঘটনা এটি। তবে ম্যারাডোনা নিজে বলেছিলেন, এটা তার হাত নয়, বরং স্বয়ং ঈশ্বরের হাত ছিল। তার এ কথার পর থেকে সেদিনের হাত দিয়ে করা গোলটি ‘হ্যান্ড অব গড’ নামেই পরিচিত সবার কাছে।

সেই ঘটনার প্রায় ৩৪ বছর পর ম্যারাডোনা আশা করছেন, দ্বিতীয় কোন ‘হ্যান্ড অব গড’ এসে দূর করে দেবে করোনাভাইরাস। এ মহামারীর কারণে স্থবির জনজীবন, খেলাধুলার তো প্রশ্নই আসে না। বিশ্বের প্রায় সোয়া দুই লাখ প্রাণ হারিয়েছেন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে। তাই হ্যান্ড অব গড দিয়ে হলেও করোনার নির্মূল চান ম্যারাডোনা।

তিনি বলেছেন, ‘আজকে সেই হ্যান্ড অব গড যদি করোনা দূর করে দিত। যাতে মানুষ সুস্থ ও সুন্দরভাবে স্বাভাবিক জীবনযাপন করতে পারে। আমাদের এখন সবাইকে এক হয়ে এর বিরুদ্ধে লড়তে হবে। কেউ আমাদের শত্রু নয়, কেউ শক্তিশালী নয়। এমনকি শক্তিশালী হলেও এ ভাইরাস আক্রমণ করে বসতে পারে।’

বিজে/জেডআই