বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদকঃ সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবস ও করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে সরকার ঘোষিত কঠোর বিধিনিষেধের দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবারে (৬ এপ্রিল) দেশের পুঁজিবাজারে সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার মধ্য দিয়ে লেনদেন চলছে। তবে এই সময়েও শেয়ার কেনার চেয়ে শেয়ার বিক্রির হিড়িক পড়েছে। অর্থাৎ বিক্রেতা থাকলেও ক্রেতার অভাবে হলটেড হয়ে পড়েছে ৬৭টি কোম্পানির শেয়ার।

ফলে লেনদেনের প্রথম আধা ঘণ্টায় ব্যাংক-বিমা, প্রকৌশল এবং বস্ত্রখাতের বেশির ভাগ শেয়ারের দাম বাড়ায় ডিএসইর প্রধান সূচক ৫৫ পয়েন্ট বেড়ে পাঁচ হাজার ২৩২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ সূচক বেড়েছে ২৩ এবং ডিএসইএস শরিয়াহ সূচক বেড়েছে ১০ পয়েন্ট। তাতে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১২১ কোটি ৮৪ লাখ টাকার শেয়ার।

লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর শেয়ারের মধ্যে দাম বেড়েছে ১৮২টির, কমেছে ১৩টির, আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৯টির।

দেশের অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) প্রধান সূচক ১১৪ পয়েন্ট বেড়ে ১৫ হাজার ৭৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। লেনদেন হয়েছে ১ কোটি ৩৮ লাখ টাকার শেয়ার। লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর শেয়ারের মধ্যে দাম বেড়েছে ৫০টির, কমেছে ৫টির, আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১২টির।

এদিকে করোনা পরিস্থিতির ক্রমাগত অবনতি রোধে সোমবার থেকে সাত দিনের জন্য কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করেছে সরকার। এ সময় পুঁজিবাজারে লেনদেন হবে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত। অর্থাৎ লেনদেন হচ্ছে মাত্র দুই ঘণ্টা।

কঠোর বিধিনিষেধের নতুন সময়সূচিতে লেনদেন শুরু হয়েছে দেশের পুঁজিবাজারে। নতুন নিয়ম অনুযায়ী প্রি-ওপেনিং লেনদেন বাদ দিয়ে (অর্থাৎ কোনো রকম প্রস্তুতি ছাড়াই সরাসরি) সকাল ১০টায় লেনদেন শুরু হয়। চলবে দুপুর ১২টা পর্যন্ত।

ঢাকা/এসএ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here