চিত্রনায়িকা বুবলীকে শেষবারের মতো জনসমক্ষে দেখা গিয়েছিল গত ১২ ফেব্রুয়ারি। ছয় মাস হলো, কোথাও সশরীর দেখা যায়নি তাঁকে। করোনাকালে তারকারা যখন ভার্চ্যুয়াল জগতে নিজেদের উপস্থিতি জানান দেওয়ার জন্য ইউটিউব চ্যানেল খুলছেন, ফেসবুকে লাইভ করছেন, ভিডিও বানাচ্ছেন, টিকটক করছেন; সেখানে বুবলী রীতিমতো উধাও।

থেকে আগস্ট—এই ছয় মাসে কোথাও সশরীরে দেখা মেলেনি চিত্রনায়িকা শবনম বুবলীর। করোনাকাল শুরুর আগে থেকেই এই অভিনেত্রী লোকচক্ষুর আড়ালে চলে যান। এ নিয়ে শুরু হয় ফিসফাস, গুঞ্জন, বিতর্ক। ‘বুবলী অন্তঃসত্ত্বা’—লোকমুখে এমনটাও শোনা যায়। তবে এসবের কোনো সত্যতা এখনো মেলেনি। আবার সবার সামনেও আসেননি এই নায়িকা।

‘বুবলী কোথায় আছেন, কেমন আছেন?’—এই প্রশ্নের সঠিক জবাব তাঁর চলচ্চিত্রের সহশিল্পী, পরিচালক, ভক্ত কারও কাছেই নেই। বুবলী সর্বশেষ বীর ও ক্যাসিনো নামের দুটি ছবির শুটিং করছিলেন। দুটি ছবির শুটিং শেষ করে লোকচক্ষুর আড়ালে চলে যান এই নায়িকা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বুবলী অভিনীত এক ছবির পরিচালক বলেন, ‘যা রটে তা কিছুটা হলেও ঘটে। সবই গুজব নাকি সত্যি, সময়ই বলে দেবে।’

বিজ্ঞাপন
 ১২ ফেব্রুয়ারি ঢাকার বনানীর এক রেস্তোরাঁয় ক্যাসিনো ছবির গানের শুটিংয়ে শেষবার অংশ নিয়েছিলেন শবনম বুবলী। সঙ্গে অভিনেতা নিরব।
১২ ফেব্রুয়ারি ঢাকার বনানীর এক রেস্তোরাঁয় ক্যাসিনো ছবির গানের শুটিংয়ে শেষবার অংশ নিয়েছিলেন শবনম বুবলী। সঙ্গে অভিনেতা নিরব।
সংগৃহীত

কোথায় আছেন, কেমন আছেন বুবলী

গত ১২ ফেব্রুয়ারি ঢাকার বনানীর এক রেস্তোরাঁয় ক্যাসিনো ছবির গানের শুটিংয়ে শেষবার অংশ নিয়েছিলেন শবনম বুবলী। এরপর থেকে কেউ বলছেন তিনি কানাডায় আছেন, কেউ বলেন যুক্তরাষ্ট্রে, আবার কেউবা বলছেন ঢাকাতেই অবস্থান করছেন বুবলী। তবে শেষ দিনের শুটিংয়ের সময় এই প্রতিবেদককে বুবলী নিজেই বলেছিলেন, চলচ্চিত্র বিষয়ে পড়াশোনা করতে যুক্তরাষ্ট্রে যাবেন তিনি।

গত ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে বুবলীকে নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রচারিত হয়। তাতে এক চলচ্চিত্র প্রযোজকসহ বিভিন্ন সূত্রের বরাত দিয়ে বুবলীর অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার তথ্যটি প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করা হয়। সেই প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘২৫ হাজার ডলার দিয়ে সন্তান জন্মের জন্য বুবলীকে দেশের বাইরে পাঠিয়েছেন চিত্রনায়ক শাকিব খান।’ প্রতিবেদনটি প্রচারের পরপরই বুবলী দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমকর্মীর সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপ কলের মাধ্যমে যোগাযোগ করে জানান, অন্তঃসত্ত্বা হওয়া ও শাকিব খানের সঙ্গে তাঁর সম্পর্কের বিষয়টি গুজব। তিনি দেশেই আছেন বলে দাবি করেন। মাস দুয়েক আগে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সংগীত পরিচালক এই প্রতিবেদককে জানান বুবলী কানাডায় অবস্থান করছেন। তবে এখনও এই কথার সত্যতা পাওয়া যায়নি।

আছেন তবে ভার্চ্যুয়ালি

করোনাকালে নাটক, চলচ্চিত্র ও সংগীতাঙ্গনের তারকাদের অনেককেই ভার্চ্যুয়াল জগতে বেশ সরব। এ সময়ে সমসাময়িক তারকারা অংশ নিয়েছেন করোনাভাইরাস সম্পর্কে সচেতনতার প্রচারে এবং বিভিন্ন দাতব্য কার্যক্রমে। তারকারা এই পরিস্থিতিতে বাড়িতে বসেই দিয়েছেন ভিডিও সাক্ষাৎকার, অংশ নিয়েছেন ফটোশুটে, বানিয়েছেন সৃজনশীল ভিডিও কনটেন্ট। কিন্তু কোনোকিছুতেই নেই বুবলী। বুবলীর ফোন নম্বরটি সচল আছে। ফেসবুকেও মাঝেমধ্যে তাঁর পোস্ট দেখা যায়। তবে মেসেঞ্জার, হোয়াটসঅ্যাপে তাঁর মন্তব্যের জন্য একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে বুবলী নিরুত্তর ছিলেন। কোনো খুদে বার্তায়ও সাড়া দেননি। এমনকি বুবলীর বড় বোনও কোনো সংবাদকর্মী বা বুবলীর সহকর্মীদের ফোনকলে সাড়া দেন না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here