অনলাইন জিডি করবেন যেভাবে

বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক: এখন থেকে ঘরে বসেই একজন বাংলাদেশি নাগরিক অনলাইনে সাধারণ ডায়রি (জিডি) ও ফার্স্ট ইনফরমেশন রিপোর্ট (এফআইআর) করতে পারবেন। এ কাজের জন্য আর সশরীরে থানায় যেতে হবে না।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব

মঙ্গলবার ২১ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘অনলাইন জিডি’ প্রকল্পের উদ্বোধন করেছেন। রাজারবাগের পুলিশ মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানটিতে প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যোগ দেন।

পুলিশ বাহিনীর আধুনিকায়নের লক্ষ্যে তৈরি সফটওয়্যার সিডিএমএস প্লাস প্লাস এর সঙ্গে এই অনলাইন জিডি প্রকল্পটি এপিআইর মাধ্যমে সংযুক্ত থাকবে। ২০১১ সালে নির্মিত সিডিএমএস সফটওয়্যারের মাধ্যমে বাংলাদেশের সব থানায় জমা দেওয়া এফআইআর ও এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট তথ্যকে ডিজিটাল আকারে সংরক্ষণ করা হচ্ছে।

দেশের নাগরিকরা গুগলের প্লে স্টোর অথবা পুলিশের ওয়েবসাইট থেকে অনলাইন জিডি অ্যাপ ডাউনলোড করতে পারবেন।

ব্যবহারকারীরা তাদের ব্যক্তিগত তথ্য ও জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি), পাসপোর্ট অথবা জন্মসনদ নম্বর ব্যবহার করে নিবন্ধন করতে পারবেন। সফলভাবে জিডি করার পর ব্যবহারকারীরা একটি অনন্য কিউআর কোড পাবেন, যার মাধ্যমে তারা ভবিষ্যৎ ব্যবহারের জন্য জিডির ডিজিটাল অথবা মুদ্রিত অনুলিপি সংগ্রহ করতে পারবেন।

কীভাবে অনলাইনে জিডি করবেন:

প্রথম ধাপ

প্রথম ধাপ. ছবি: ওয়েবসাইট থেকে নেওয়া

রেজিস্ট্রেশনে ক্লিক করুন> আপনার জাতীয়পরিচয়পত্র, পাসপোর্ট অথবা জন্মসনদপত্র নম্বর লিখুন> আপনার বর্তমান ঠিকানা দিন> আপনার একটি লাইভ ছবি তুলুন> আপনার মোবাইল নং (যা পরবর্তীতে ইউজারনেম হিসেবে ব্যবহার হবে) ও ইমেল অ্যাড্রেস (যদি থাকে) দিন এবং একটি পাসওয়ার্ড নির্ধারণ করুন।

আপনার পরিচয় সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার জন্য এসএমএসের মাধ্যমে আপনার মোবাইলে (যে নাম্বারটি আগে দিয়েছেন) একটি ওটিপি কোড পাঠানো হবে।

সঠিকভাবে এই ওটিপি কোডটি মোবাইলে লিখুন।

লগ ইন পেজে ‘লগইন এর ওপর ক্লিক করে আপনার মোবাইল নং ও পাসওয়ার্ড দিন।

দ্বিতীয় ধাপ

প্রথমে অভিযোগের ধরন নির্বাচন করতে হবে। এরপর জেলা ও যে থানায় আপনি জিডি করতে চান, সে থানা নির্বাচন করতে হবে। এরপর কোথায় এবং কখন ঘটনাটি ঘটেছে, তা লিখে ‘নেক্সট’ এ ক্লিক করতে হবে।

তৃতীয় ধাপ

আপনার বর্তমান ঠিকানা এবং ঘটনার বিস্তারিত উল্লেখ করুন। যদি অভিযোগের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কোনো নথি থাকে, তবে তা সংযুক্ত করুন। ‘সাবমিট’ লেখা বাটনে ক্লিক করুন। ফর্মে কোনো ভুল থাকলে বা সংশোধনের প্রয়োজন থাকলে ‘এডিট’ বাটনে ক্লিক করুন। আবেদন সম্পন্ন হলে পরবর্তীতে লগইন করে আপনি আপনার জিডিএ’র (জিডি’র আবেদনের) সর্বশেষ অবস্থা জানতে পারবেন। 

ঢাকা/এসএম