ঈদের পর ঊর্ধ্বমুখী পুঁজিবাজার

বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক: সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার মধ্য দিয়ে ঈদ পরবর্তী রোববার (২৫ জুলাই) লেনদেন শুরু হয়েছে দেশের পুঁজিবাজারে। ব্যাংক-বিমা এবং মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ারের দাম বাড়ার মধ্য দিয়ে সকাল ১০টায় লেনদেন শুরু হয়। এরপর পুঁজিবাজারে সূচকের উত্থানে লেনদেন চলছে। সূচকের পাশাপাশি বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ার ও ‍মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ারের দাম বেড়েছে।

সকাল সাড়ে ১০টায় দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক বেড়েছে ২১ পয়েন্ট। অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক বেড়েছে ৭৯ পয়েন্ট।

ডিএসইর তথ্য মতে, ঈদুল আজহার পর রোববার সকাল ১০টায় পুঁজিবাজারে লেনদেন শুরু হয়। শুরু থেকে ব্যাংক, বিমা এবং মিউচ্যুয়াল ফান্ডের বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম বাড়ায় সূচকের তেজিভাবের মধ্য দিয়ে লেনদেন চলছে।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব

লেনদেনের প্রথম আধা ঘণ্টায় ডিএসইতে মোট ৩৬৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৭৮টির, কমেছে ১৭৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৯টির। তাতে লেনদেন হয়েছে ২৫৮ কোটি ৬৮ লাখ ৬৯ হাজার টাকা।

বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম বাড়ায় তিন সূচকের মধ্যে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২১ দশমিক ৩৪ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৪২৬ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। প্রধান সূচকের পাশাপাশি ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৩৮৯ পয়েন্টে এবং ডিএসই-৩০ সূচক সাত পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ৩২৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

অপরদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ৭৯ পয়েন্ট বেড়ে ১৮ হাজার ৬৮৪ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। সিএসইতে লেনদেন হওয়া ১৩০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বেড়েছে ৭৩টির, কমেছে ৪১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৬টির শেয়ারের দাম। সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৫ কোটি ৯০ লাখ ৬৩ হাজার ৫৩২ টাকা।

এদিকে করোনাভাইরাসের প্রতিরোধে ব্রোকারেজ হাউজগুলোতে বিনিয়োগকারীদের উপস্থিত হয়ে লেনদেনে নিরুৎসাহিত করেছে ডিএসই ও সিএসই কর্তৃপক্ষ। যে কারণে অনেকে মোবাইল অ্যাপের মাধ্যমে লেনদেন করছেন।

ঢাকা/এনইউ 

আরও পড়ুন: