কর্মকর্তাদের শেয়ার দিচ্ছে মিডল্যান্ড ব্যাংক

বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদকঃ নতুন প্রজন্মের মিডল্যান্ড ব্যাংক লিমিটেড শেয়ারবাজারে আসছে। আসার আগে কোম্পানির কর্মকর্তাদের জন্য প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) শেয়ার দিতে চায় ব্যাংকটি। এ আবেদন অনুমোদন দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

ব্যাংকটিকে শেয়ারবাজারে আনতে ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে কাজ করবে লংকাবাংলা ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড। পঁজিবাজারে আসতে প্রতিষ্ঠান দুটির মধ্যে আজ একটি চুক্তি সই হয়েছে।

ব্যাংক সূত্রে জানা গেছে, প্রতিষ্ঠানটি নির্ধারিত মূল্যে ৭ কোটি শেয়ার ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে ৭০ কোটি টাকা সংগ্রহ করতে চায়। যার মধ্যে ৩৫ লাখ শেয়ার বরাদ্দ রাখা হয়েছে কর্মকর্তাদের জন্য। বাকী ৬ কোটি ৬৫ লাখ শেয়ার বাজারে ছাড়বে ব্যাংকটি। কর্মকর্তাদের জন্য বরাদ্দকৃত শেয়ারগুলোর ২ বছরের জন্য লকইন থাকবে।

এ বিষয়ে কোম্পানি সচিব খালিদ মোহাম্মদ শরীফ গণমাধ্যমকে বলেন, মিডল্যান্ড ব্যাংক পুঁজিবাজার থেকে ৭গ কোটি টাকা তুলতে চায়। এর মধ্যে ৩৫ লাখ শেয়ার বা সাড়ে কোটি টাকা বরাদ্দ রাখবে কর্মকর্তাদের জন্য। সব পর্যায়ের কর্মকর্তারা এই শেয়ারে আবেদন করতে পারবে।

মিডল্যান্ড ব্যাংক ২০১৩ সালে ‘ব্যাংক ফর ইনক্লুসিভ গ্রোথ’ বা অন্তর্ভুক্তিমূলক প্রবৃদ্ধির জন্য ব্যাংক এই স্লোগানে কার্যক্রম শুরু করে। গত ৭ বছরে ব্যাংকটি গ্রাহক পরিধি খুব বেশি বাড়াতে না পারলেও করপোরেট সুশাসনে অগ্রগতি দেখিয়েছে।

ব্যাংকটি ১৮ বছরের কম বয়সী স্কুল শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে এমডিবি স্কুল সেভার। এর মাধ্যমে মাত্র ১০০ টাকা জমা দিয়ে এ হিসাব খোলা যায়। কলেজের শিক্ষার্থীদের জন্য কলেজ সেভার, যা ১৮ বছরে বেশি বয়সের শিক্ষার্থীরা মাত্র ৫০০ টাকা জমা দিয়ে খুলতে পারেন।

প্রবাসীদের জন্য প্রবাসী সেভিংস। বিদেশে বসে প্রবাসীদের হিসাব ও আমানত রাখার জন্য এমডিবি ডিজিটাল প্রবাসী সেভিংস। এ ছাড়া এমডিবি ইন্টারেস্ট ফার্স্ট, ডিজিটাল সেভিংস, রিটেইল ব্যাংকিং, সুপার সেভার তো রয়েছেই।

এ ছাড়া বিভিন্ন মেয়াদি আমানত পণ্যও রয়েছে ব্যাংকটির। এতে প্রতি মাসে টাকা জমা দিয়ে মেয়াদ শেষে ভালো মুনাফাসহ টাকা পাওয়া যায়।ব্যাংকটির এসব পণ্যের মাধ্যমে এখন পর্যন্ত ৩ হাজার ৭৬৭ কোটি টাকা আমানত সংগ্রহ করছে। আর ঋণ দিয়েছে ৩ হাজার ১৬৫ কোটি টাকা। আর ব্যাংকটিতে এখন পর্যন্ত প্রায় ২ লাখ গ্রাহক হিসাব খুলেছেন।

ঋণ দেওয়ার জন্য ব্যাংকটির রয়েছে নানা ঋণসেবা পণ্যও। খুচরা ঋণের মধ্যে অন্যতম হলো ব্যক্তিগত, গাড়ি কেনা, বাড়ি কেনা, সিকিউরড ঋণ অন্যতম। রয়েছে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উদ্যোক্তাদের জন্য আইটি উদ্যোগ, কৃষি, এসএমই, গ্রিন ঋণ, নারী উদ্যোগসহ আরও নানা ঋণপণ্য। ব্যাংকটির রয়েছে প্রি পেইড কার্ড ও ক্রেডিট কার্ড সুবিধাও।

ঢাকা/এনইউ