বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক: পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে দৈনিক প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামের সঙ্গে স্বাস্থ্য সচিবের অফিস স্টাফদের অসদাচরণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে গান বেঁধেছেন সংগীতশিল্পী সোমনূর মনির কোনাল। ১৮ মে (মঙ্গলবার) নিজের ফেসবুকে ভিডিও আকারে গানটি প্রকাশ করেন জনপ্রিয় এই গায়িকা।

গানটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘সত্য কন্যা রোজিনা’। কণ্ঠ দেওয়ার পাশাপাশি এর কথা-সুরও করেছেন কোনাল নিজেই। গানটি পোস্ট করে রোজিনার মুক্তি চেয়ে হ্যাশট্যাগও দিয়েছেন ২০০৯ সালের ‘সেরাকণ্ঠ’ বিজয়ী এই গায়িকা।

কোনাল বলেন, ‘রোজিনা একজন সৎ ও নির্ভীক সাংবাদিক। তিনি দেশের শীর্ষ দৈনিকে কাজ করেন। সাংবাদিকতার জন্য অনেক পুরস্কারও পেয়েছেন। কিন্তু স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দুর্নীতির কথা তুলে ধরায় তাকে এভাবে হেনস্তা করা হয়েছে। এটা একটা রাষ্ট্রের জন্য কখনো ভালো বার্তা বয়ে আনে না। এই ঘটনার প্রতিবাদ জানাতেই আমি গানটি করেছি। আমার মা বলেছে, রোজিনাদের কলম কোনোদিন থামবে না!’

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব

গানটির কথাগুলো হলো-
রোজিনা তুমি জানো না কত আপনজন তোমার পাশে 
রোজিনা ভয় পেও না সত্যের সুন্দর জয় আছে
রোজিনা হাল ছেড়ো না তুমিই যে ‘সত্য কন্যা’
লিখবে তুমি ন্যায়ের কথা তোমার কলম থামতে দেবো না
খাঁচায় তুমি কেন বন্দি হলে এর জবাব চাই, দিতে হবে
দেশের দশের ভালো করতে গিয়ে এই কি পুরস্কার তবে!?
বঙ্গবন্ধুর সোনার দেশে দুর্নীতির কোনো স্থান হবে না
শেখ হাসিনার গণতন্ত্রে জয় হবেই হবে তুমি ভেবো না
রোজিনাকে মুক্ত করতে হবে আর একটি কথাও শুনব না।

উল্লেখ্য, সোমবার (১৭ মে) পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য সাংবাদিক রোজিনা ইসলাম স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে যান। সেখানে ৫ ঘণ্টার বেশি সময় তাকে আটকে রেখে হেনস্তা করা হয়। একপর্যায়ে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। রাত ৯টার দিকে তাকে সচিবালয় থেকে শাহবাগ থানায় আনা হয়। পরে অনুমতি ছাড়া মোবাইল ফোনে সরকারি গুরুত্বপূর্ণ নথির ছবি তোলা এবং আরও কিছু নথি লুকিয়ে রাখার অভিযোগ এনে তার নামে মামলা দেওয়া হয়।

এই মামলায় মঙ্গলবার (১৮ মে) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জসিমের আদালত শুনানি শেষে রিমান্ড নামঞ্জুর করে রোজিনাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় বিশেষ কৃতিত্বের জন্য রোজিনা ইসলাম ‘কানাডিয়ান অ্যাওয়ার্ডস ফর এক্সিলেন্স ইন বাংলাদেশি জার্নালিজম’ (২০১১), ‘টিআইবির অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার’ (২০১৫), পিআইবি ও দুদকের উদ্যোগে ‘দুর্নীতি প্রতিরোধে গণমাধ্যম পুরস্কার বাংলাদেশ’সহ (২০১৪) বেশ কিছু পুরস্কার পেয়েছেন।

ঢাকা/এনইউ

আরও পড়ুন: