পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত চারটি কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ ভেঙে দিয়ে নতুন পর্ষদ গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশের পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা। সোমবার রাতে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের চেয়ারম্যান শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম সংবাদ মাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

কোম্পানিগুলো হল- ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ, সিএনএ টেক্সটাইল, ফ্যামিলি টেক্স ও এমারেল্ড অয়েল লিমিটেড।

ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ : ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ বর্তমানে ওটিসি মার্কেটে লেনদেন হচ্ছে। কোম্পানিটি পুঁজিবাজারে ২০১০ সালে তালিকাভুক্ত হয়েছিল।

এই কোম্পানির মাত্র ২ দশমিক ৫০ শতাংশ শেয়ার আছে পরিচালকদের হাতে। প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের হাতে ১১ দশমিক শূন্য ৭ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীর হাতে ৮৬ দশমিক ৪৩ শতাংশ শেয়ার রয়েছে।

সিএনএ টেক্সটাইল : সিএনএ টেক্সটাইল ২০১৫ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়েছিল।

কোম্পানিটির ২২ দশমিক ১৪ শতাংশ শেয়ার আছে পরিচালকদের হাতে। প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের হাতে আছে ১৫ দশমিক ৬৭ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীর হাতে আছে ৬২ দশমিক ১৯ শতাংশ।

ফ্যামিলি টেক্স : ফ্যামিলি টেক্স ২০১৩ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়েছিল।

কোম্পানির মাত্র ৪ দশমিক শূন্য ২ শতাংশ শেয়ার আছে পরিচালকদের হাতে। প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের হাতে আছে ১৮ দশমিক ৪১ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীর হাতে আছে ৭৭ দশমিক ৫৭ শতাংশ।

এমারেল্ড অয়েল : এমারেল্ড অয়েল ২০১৪ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়েছিল।

কোম্পানির ৩০ দশমিক ৪৫ শতাংশ শেয়ার আছে পরিচালকদের হাতে। প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের হাতে আছে ১৬ দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীর হাতে আছে ৫৩ দশমিক ৪৭ শতাংশ।