১০:৫৮ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪

জি-৭ মাত্র ৩ শতাংশ ব্যয় কমালে ক্ষুধামুক্ত হবে বিশ্ব

বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক:
  • আপডেট: ০৬:১৮:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪
  • / ১০২৫৪ বার দেখা হয়েছে

জি-৭ তাদের সামরিক ব্যয় মাত্র ৩ শতাংশ কমালে তা দিয়ে বৈশ্বিক খাদ্য ও ঋণ সংকটের সমাধান হয়ে যেত বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা অক্সফাম। আজ (১৩ জুন) থেকে ইতালিতে জি-৭ এর শীর্ষ সম্মেলন শুরু হচ্ছে। এই সম্মেলনকে সামনে রেখেই এই বিবৃতি দিয়েছে অক্সফাম।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব

বিশ্ব বর্তমানে ‘ক্ষুধা’ নামক শতাব্দীর সবচেয়ে বড় বিপর্যয়ের সম্মুখীন। গত কয়েক দশক ধরেই বিশ্বে খাদ্য সংকট বেড়ে চলেছে। এর পরিণাম হচ্ছে বহু মানুষের না খেয়ে থাকা। বিশ্বের লাখ লাখ পরিবার তাদের শিশুদের জন্য পর্যাপ্ত খাবারের যোগান দিতে ব্যর্থ হচ্ছে।

অক্সফাম’র বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বিশ্ব থেকে ক্ষুধা নির্মূল করতে প্রতি বছর তিন হাজার ১৭০ কোটি ডলার প্রয়োজন। জি-৭-ভুক্ত দেশগুলো তাদের বার্ষিক সামরিক বাজেট ২.৯ শতাংশ হ্রাস করলে এই পরিমাণ অর্থ বেচে যায় এবং এই অর্থ দিয়ে ক্ষুধা নির্মূল করা সম্ভব। ২০২৩ সালে জি-৭-ভুক্ত দেশগুলোর বার্ষিক সামরিক বাজেটের পরিমাণ ছিল ১২ লাখ কোটি ডলার।

আরও পড়ুন: মাঙ্কিপক্স: দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম মৃত্যু

এতে আরও বলা হয়েছে, সরকারগুলো যুদ্ধ ও রক্তপাতের জন্য মুক্ত হস্তে খরচ করতে রাজি থাকলেও ক্ষুধা নির্মূলের প্রসঙ্গ আসলেই তারা দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার আশঙ্কাকে সামনে নিয়ে আসে।

জি-৭-এর পূর্ণাঙ্গ রূপ হলো গ্রুপ অব সেভেন বা সাতটি দেশের দল। বিশ্বের উন্নত অর্থনীতির সাতটি বড় দেশ ও একটি সংস্থা নিয়ে এই জোট গঠিত। জোটের সদস্যদেশ হলো কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, জাপান, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্র। এ ছাড়া ইউরোপীয় ইউনিয়ন এই জোটের একটি অংশ।খবর- পার্সটুডের

ঢাকা/এসএইচ

শেয়ার করুন

x

জি-৭ মাত্র ৩ শতাংশ ব্যয় কমালে ক্ষুধামুক্ত হবে বিশ্ব

আপডেট: ০৬:১৮:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

জি-৭ তাদের সামরিক ব্যয় মাত্র ৩ শতাংশ কমালে তা দিয়ে বৈশ্বিক খাদ্য ও ঋণ সংকটের সমাধান হয়ে যেত বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক দাতব্য সংস্থা অক্সফাম। আজ (১৩ জুন) থেকে ইতালিতে জি-৭ এর শীর্ষ সম্মেলন শুরু হচ্ছে। এই সম্মেলনকে সামনে রেখেই এই বিবৃতি দিয়েছে অক্সফাম।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব

বিশ্ব বর্তমানে ‘ক্ষুধা’ নামক শতাব্দীর সবচেয়ে বড় বিপর্যয়ের সম্মুখীন। গত কয়েক দশক ধরেই বিশ্বে খাদ্য সংকট বেড়ে চলেছে। এর পরিণাম হচ্ছে বহু মানুষের না খেয়ে থাকা। বিশ্বের লাখ লাখ পরিবার তাদের শিশুদের জন্য পর্যাপ্ত খাবারের যোগান দিতে ব্যর্থ হচ্ছে।

অক্সফাম’র বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বিশ্ব থেকে ক্ষুধা নির্মূল করতে প্রতি বছর তিন হাজার ১৭০ কোটি ডলার প্রয়োজন। জি-৭-ভুক্ত দেশগুলো তাদের বার্ষিক সামরিক বাজেট ২.৯ শতাংশ হ্রাস করলে এই পরিমাণ অর্থ বেচে যায় এবং এই অর্থ দিয়ে ক্ষুধা নির্মূল করা সম্ভব। ২০২৩ সালে জি-৭-ভুক্ত দেশগুলোর বার্ষিক সামরিক বাজেটের পরিমাণ ছিল ১২ লাখ কোটি ডলার।

আরও পড়ুন: মাঙ্কিপক্স: দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম মৃত্যু

এতে আরও বলা হয়েছে, সরকারগুলো যুদ্ধ ও রক্তপাতের জন্য মুক্ত হস্তে খরচ করতে রাজি থাকলেও ক্ষুধা নির্মূলের প্রসঙ্গ আসলেই তারা দেউলিয়া হয়ে যাওয়ার আশঙ্কাকে সামনে নিয়ে আসে।

জি-৭-এর পূর্ণাঙ্গ রূপ হলো গ্রুপ অব সেভেন বা সাতটি দেশের দল। বিশ্বের উন্নত অর্থনীতির সাতটি বড় দেশ ও একটি সংস্থা নিয়ে এই জোট গঠিত। জোটের সদস্যদেশ হলো কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, জাপান, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্র। এ ছাড়া ইউরোপীয় ইউনিয়ন এই জোটের একটি অংশ।খবর- পার্সটুডের

ঢাকা/এসএইচ