বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদকঃ মূল্য সংযোজন করের (ভ্যাট/মূসক) অনলাইন রিটার্ন জমায় অষ্টমবারের মতো শীর্ষ স্থান অর্জন করেছে কুমিল্লা কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) আওতাধীন ১২টি ভ্যাট কমিশনারেটের মধ্যে গত আগস্ট থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত টানা আটবার প্রথম স্থান ধরে রাখল কুমিল্লা কাস্টমস।

চলতি বছরের মার্চ মাসে ওই অফিসের আওতায় অনলাইনে রিটার্ন জমা হয়েছে ৯৫ দশমিক ৪৭ শতাংশ। মার্চে কুমিল্লা কাস্টমসের অধীনে মোট ৯ হাজার ৮৪০ জন করদাতা অনলাইনে ভ্যাট রিটার্ন দাখিল করেন। যেখানে বর্তমানে এনবিআরের মোট অনলাইন রিটার্ন জমার হার প্রায় ৪২ দশমিক ২৮ শতাংশ। রোববার (১৮ এপ্রিল) এনবিআরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

এ বিষয়ে কুমিল্লা কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাটের কমিশনার মোহাম্মদ বেলাল হোসাইন চৌধুরী বলেন, লকডাউনের মধ্যেও স্বল্পসংখ্যক জনবল নিয়ে গভীর রাত পর্যন্ত কাজ করা হয়েছে। এ নিয়ে টানা আটবার অনলাইন ভ্যাট রিটার্ন জমায় প্রথম হলো কুমিল্লা ভ্যাট। সরকারের ডিজিটাল অঙ্গীকার বাস্তবায়নে বিশেষ এজেন্ডা নিয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড কাজ করছে। দলবদ্ধ প্রচেষ্টা ও প্রতিযোগিতা এ অভূতপূর্ব সাফল্যের মূল নিয়ামক এবং দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ কর্মকর্তাদের পরিশ্রম ও সাফল্যের পিপাসা কুমিল্লা কমিশনারেটকে রাজস্ব প্রবৃদ্ধি ও রিটার্ন দাখিলে উপর্যুপরি সাফল্য এনে দিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, সক্ষম কর্মকর্তাদের বাছাই করে জটিলতর কাজে নিয়োগ, মনিটরিং উদ্বুদ্ধকরণ এক্ষেত্রে গতি বাড়াতে সহায়ক হয়েছে। সর্বোপরি কর্মস্থলে দেশাত্মবোধ ও সেবার মনোভাব থাকা জরুরি।

গত বছরের জুলাইয়ে কুমিল্লা কাস্টমসের অধীনে ভ্যাট রিটার্ন দাখিলের হার ছিল ৫১ শতাংশ। পরবর্তী সময়ে কমিশনারেটের ছয়টি জেলায় নানা তদারকির পর থেকে অনলাইনে ভ্যাট রিটার্ন দাখিলের হার বৃদ্ধি পায়। ‘আলোকিত কাস্টমস, আলোকিত দেশ ও অতিক্রম নয় ব্যতিক্রম’ স্লোগানে উদ্বুদ্ধ হয়ে অর্থবছরের প্রথম থেকে কাজ করছে কুমিল্লা কাস্টমস টিম।

ঢাকা/এসএ

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here