ডিএসইতে গড় লেনদেন কমেছে ১৪.৯৬%

বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক: বিদয়ী সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সব ধরনের মূল্য সূচকের উত্থানে লেনদেন শেষ হয়েছে। টাকার অংকে লেনদেনও বেড়েছে কিছুটা। তবে ডিএসইতে দৈনিক গড় লেনদেনের পরিমাণ কমেছে ১৪.৯৬ শতাংশ। আলোচ্য সপ্তাহে ডিএসইতে বাজার মূলধনেও ইতিবাচক প্রভাব রয়েছে।

ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

আলোচ্য সপ্তাহে ডিএসইতে মোট ৫ কর্মদিবস লেনদেন হয়েছে। আগের সপ্তাহে ডিএসইতে ৪ কর্মদিবস লেনদেন হয়েছিল। গত সপ্তাহে ডিএসইতে প্রতিদিন গড়ে ১ হাজার ৪২৫ কোটি ৭৩ লাখ ৪১ হাজার ১৩৩ টাকার লেনদেন হয়েছে। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ৬৭৬ কোটি ৬২ লাখ ১৮ হাজার ৪৭৭ টাকার। এই হিসাবে ডিএসইতে গড় লেনদেন কমেছে ১৪.৯৬ শতাংশ।

এদিকে সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৭ হাজার ১২৮ কোটি ৬৭ লাখ ৫ হাজার ৬৬৫ টাকার শেয়ার। আগের সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৬ হাজার ৭০৬ কোটি ৪৮ লাখ ৭৩ হাজার  টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে ৪২২ কোটি ১৮ লাখ ৩১ হাজার টাকার বা ৬.৩০ শতাংশ লেনদেন বেড়েছে।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব`

ডিএসইতে প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স সপ্তাহের ব্যবধানে ১১৭ দশমিক ৯০  পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৮৭ শতাংশ বেড়েছে।

আলোচিত সপ্তাহে বাজারমূলধনে শীর্ষ ৩০ কোম্পানির মূল্যসূচক ডিএস৩০ আগের সপ্তাহের চেয়ে ৫২ দশমিক ৯৭ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ৩৩ শতাংশ বেড়ে  ২ হাজার ৩২৭ দশমিক ৮৮ পয়েন্টে উঠেছে।

অন্যদিকে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক বেড়েছে ৪১.৬৮ পয়েন্ট বা ৩ দশমিক ০৭ শতাংশ।

ডিএসইতে গত সপ্তাহে ৩৮১টি কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট কেনাবেচা হয়। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৯৯টির, কমেছে ১৬৭টির। আর ১১টির দাম ছিল অপরিবর্তিত।

ঢাকা/এনইউ

আরও পড়ুন: