বিশ্বের শীর্ষ দুর্নীতিগ্রস্ত দেশগুলোর তালিকায় সর্বনিম্ন দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান এখন ১২তম। ২০১৯ সালের তুলনায় দুর্নীতিতে দুই ধাপ নিচে নেমেছে বাংলাদেশ।

বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) অনলাইনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ২০২০ সালের সূচক প্রকাশ করেন ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান। প্রতিবছর বিশ্বজুড়ে দুর্নীতির ধারণা সূচক প্রকাশ করে থাকে বার্লিনভিত্তিক ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল (টিআই)। এরই ধারাবাহিকতায় এ বছরও প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে সংস্থাটি। এ প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

টিআইবির তথ্য অনুযায়ী, ১৮০টি দেশের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান নিচের দিক থেকে ১২তম। ২০০১ সাল থেকে বাংলাদেশ এই জরিপের অন্তর্ভক্ত হয়েছে। এই তালিকায় উপরের দিক থেকে ১৪৬তম বাংলাদেশ।

দুর্নীতিমুক্ত দেশ হিসেবে প্রথম হয়েছে ডেনমার্ক ও নিউজিল্যান্ড। পরবর্তী অবস্থানে রয়েছে- ফিনল্যান্ড, সিঙ্গাপুর, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, নরওয়ে, নেদারল্যান্ড, জার্মানি, লুক্সেমবার্গ, অস্ট্রেলিয়া ও কানাডা। সবচেয়ে কম স্কোর ১২ পেয়েছে সাউথ সুদান ও সোমালিয়া। ৬২টি দেশের স্কোর বেড়েছে। ৭০টি দেশের স্কোর আগের মতই রয়েছে। ৪৮টি দেশের স্কোর নেমেছে বলেও জানান ড. ইফতেখারুজ্জামান।

তিনি জানান, দুর্নীতির ধারণা সূচকে (করাপশন পারসেপশন ইনডেক্স-সিপিআই ২০২০) বাংলাদেশের স্কোর ২৬, যা গত বছরও একই ছিল। দুর্নীতির তালিকায় সর্বোচ্চ থেকে গণনা করলে বিশ্বের ১৮০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১৪৬তম।

২০২০ সালের সিপিআই অনুযায়ী, দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে কম দুর্নীতিগ্রস্ত দেশ ভুটান। এ দেশটির স্কোর ৬৮ ও সর্বোচ্চ থেকে গণনা অনুযায়ী সূচকে অবস্থান ২৪, যা ২০১৯ সালের সমান স্কোর হলেও অবস্থানে ১ ধাপ এগিয়েছে।