বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক: নুসরাত জাহান ও নিখিল জৈনের সম্পর্ক নিয়ে কয়েকদিন বেশ আলোচনা চলছে টলিউডে। শেষ পর্যন্ত তাদের বিয়ের কথাই অস্বীকার করলেন অভিনেত্রী। এরপর থেকে নতুন মোড় নেয় তাদের এই খবর। 

বুধবার (৯ জুন) এক বিবৃতিতে অভিনেত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ নুসরাত জাহান জানিয়েছেন, নিখিলের সঙ্গে তার বিয়েই হয়নি। তুরস্কে জাঁকজমকভাবে যে বিয়ের খবর দর্শকদের কাছে পৌঁছেছে, সেটি কেবল দেশটির প্রচলিত আইন মেনে করা হয়েছে। ভারতীয় আইনের সঙ্গে এর কোনো সম্পর্ক নেই। 

অন্যদিকে ভারতের আরেক জনপ্রিয় অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত এই সম্পর্কের টানাপোড়েনে জড়িয়ে গেলেও এত দিন ধরে নীরব ছিলেন। সম্প্রতি সামাজিক মাধ্যমের এক পোস্টে তিনি প্রথমবারের মতো নুসরাত ও নিখিলের সম্পর্কের ব্যাপারে ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য করেছেন। 

পোস্টে তিনি বলেন, ‌‘চালাক মানুষ সমস্যার সমাধান করেন এবং বুদ্ধিমানরা এড়িয়ে যান।’ পোস্টের সঙ্গে রয়েছে নিজের বাসার বারান্দায় কয়েকটি ফুল গাছের সঙ্গে তার ছবি। অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন, গতকাল সোশ্যাল মিডিয়ায় যশ কি তাহলে কৌশলে নুসরাত ও নিখিলের সম্পর্ক নিয়ে মন্তব্য করেছেন।

যশ কাকে চালাক বলেছেন আর কাকে বুদ্ধিমান? কোন সমস্যার কথাই বা মনে করিয়ে দিতে চাইছেন তিনি? যদিও এসব প্রশ্ন ওঠার পরেও অভিনেতা কোনো উত্তর দেননি। তবে ভক্তরা ধরে নিয়েছেন নিখিল ও নুসরাতকে বার্তা দিতেই তিনি এমন পোস্ট দিতে পারেন। ভারতের সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, নিখিল ও নুসরাত চালাক হলে বিষয়টি নিজেদের মধ্যে মীমাংসা করতে চেষ্টা করতেন। বুদ্ধিমান হলে পুরোটুকুই গোপন করে রাখতেন। কিন্তু নুসরাত ও নিখিল এর কোনোটিই করেননি। 

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার সাংসদ ও অভিনেত্রী নুসরাত জাহানের মা হওয়ার খবরটি সামনে আসার পর থেকে একের পর এক উঠে আসছে এমন তথ্য। নিখিল দাবি করেছেন, গত ৭ মাস ধরে তিনি এবং নুসরাত আলাদা থাকেন। তাই সন্তান তার নয়। 

এই কথার সূত্র ধরে তাদের সম্পর্কের বিষয়েও নানা তথ্য উঠে এসেছে সংবাদমাধ্যম ও সামাজিক মাধ্যমে। এর মধ্যেই নুসরাত ও নিখিলের সম্পর্কের মধ্যে হঠাৎ করে ঢুকে পড়েন আরেক অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত। ফলে পরিস্থিতি জটিল হয়ে উঠছে। 

ঢাকা/এনইউ

আরও পড়ুন: