বিজনেস জার্নাল ডেস্কঃ ১৯৭৫ সালে মুক্তি পাওয়া তুমুল জনপ্রিয় সিনেমা ‘সুজন সখী’। খান আতাউর রহমান পরিচালিত এই সিনেমায় সুজন-সখী চরিত্রে অভিনয় করে আকাশচুম্বী জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন ফারুক-কবরী।

ফারুকের ক্যারিয়ারের প্রথম নায়িকা কবরী। শনিবার (১৭ এপ্রিল) করোনায় আক্রান্ত হয়ে না ফেরার দেশে চলে গেছেন কিংবদন্তি এই অভিনেত্রী। অন্যদিকে অসুস্থ হয়ে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বরেণ্য অভিনেতা ফারুক।

 কবরীর মৃত্যুর খবর এখনো জানানো হয়নি ফারুককে। রোববার (১৮ এপ্রিল) বিকালে এ প্রতিবেদন লেখার কিছুক্ষণ আগে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান কথা বলেন নায়ক ফারুকের স্ত্রীর সঙ্গে।

তা উল্লেখ করে জায়েদ খান গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমি প্রতিদিন একবার হলেও ফারুক ভাইয়ের খবর নেই৷ একটু আগে কথা বললাম। ভাবি জানিয়েছেন, ফারুক ভাই আগের চেয়ে অনেকটাই সুস্থ। তার রিপোর্ট আলহামদুলিল্লাহ ভালো এসেছে। ডাকে সাড়া দিচ্ছেন। বর্তমানে এতটুকুই আপডেট জেনেছি। ফারুক ভাইয়ের জন্য দোয়া চাচ্ছি, তিনি যেন দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠেন।’

কবরী ও ওয়াসিমের মৃত‌্যুর খবর এখনো ফারুককে জানানো হয়নি। বিষয়টি উল্লেখ করে জায়েদ খান বলেন, ‘কবরী আপা ও ওয়াসিম ভাইয়ের মৃত্যুর খবর ফারুক ভাইকে জানানো হয়নি।’

কিংবদন্তি অভিনেতা ও ঢাকা ১৭ আসনের সংসদ সদস্য ফারুক সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন রয়েছেন৷ দীর্ঘদিন অচেতন ছিলেন বরেণ্য এই অভিনেতা। এখন চিকিৎসকের ডাকে সাড়া দিচ্ছেন এবং তার এমআরআই রিপোর্ট ভালো এসেছে। ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন বলে জানিয়েছেন ফারুকের স্ত্রী ফারহানা পাঠান।

টিবি রোগে আক্রান্ত নায়ক ফারুক নিয়মিত চেকআপের জন্য গত ৪ মার্চ সিঙ্গাপুর গিয়েছেন। ১৩ মার্চ কিছু টেস্টে তার টিবি ইনফেকশন ধরা পড়ে। এরপর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এর আগে বেশ কয়েক দফায় অসুস্থ হয়েছেন ফারুক। গত বছরের নভেম্বরে করোনায় আক্রান্ত হন তিনি। সেখান থেকে সুস্থ হয়ে বেশ ভালোই ছিলেন এই বর্ষীয়ান অভিনেতা।

সূত্রঃ রাইজিংবিডি