ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের চেয়ার‍ম্যান ও সাবেক সচিব ইউনুসুর রহমান বলেন, পুঁজিবাজারের উন্নয়নে চার বিষয় জরুরি। এগুলো হলো- আইন অনেক আছে তা প্রয়োগ করা করা, দক্ষ জনবল নিয়োগ দেওয়া, নতুন পণ্য নিয়ে আসা এবং তথ্য প্রযুক্তি আরও জোরদার করা।

শনিবার (৩ অক্টোবর) বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) আয়োজিত বিশ্ব বিনিয়োগকারী সপ্তাহের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

ইউনুসুর রহমান বলেন, নতুন কমিশন দায়িত্ব নেওয়ার পর পুঁজিবাজারের মূলধন বেড়েছে ৯৩ হাজার কোটি। যা জিডিপির ২দশমিক ৫ শতাংশ। তবে বাজারকে আরও গতিশীল করার জন্য একটি দক্ষ জনগোষ্টির প্রয়োজন। যা আমাদের বাজারে নেই। বাজারে জনবল থাকলেও দক্ষ নেই। আমার ডিএসইতেও দক্ষ জনবল নেই।

তিনি বলেন, ১৯৯৬ ও ২০১০ সালে পুঁজিবাজারে অনেক বড় আঘাত পেয়েছে। ওই সময় বলা হয়েছিলেআ দেশে আইন কানুনের ঘাটতি আছে। এর পর অনেক আইন কানুন হয়েছে। তার পরও ২০১৭ সালে জিডিপিতে পুঁজিবাজারের অংশগ্রহণ ছিলো ২২ শতাংশ। ২০১০ সালে এটি এসে দাঁড়িয়েছে ১২ শতাংশ। যদিও এই সময়ের মধ্যে অনেক আইন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আমার মনে হয়েছে,আইন হয়েছে কিন্তু প্রয়োগ হয়নি। পুঁজিবাজারের উন্নয়নে আইন প্রয়োগ জরুরি বলে মনে করি।

অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বিএসইসির কমিশনার ড. শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কমিশনার ড. মিজানুর রহমান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান ও প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান। বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-ইল-ইসলাম অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

আলোচনায় অংশ নেন মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের (এমসিসিআই) চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার নিহাদ কবির, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) চেয়ারম্যান ইউনুসুর রহমান, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) চেয়ারম্যান আসিফ ইব্রাহিম, সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি অব বাংলাদেশের চেয়ারম্যান শেখ কবির হোসেন, বাংলাদেশ মার্চেন্ট ব্যাংক আসোসিয়েশনের (বিএমবিএ) প্রেসিডেন্ট ছায়েদুর রহমান, বাংলাদেশে পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি সভাপতি আজম জে চৌধুরী, ডিএসই ব্রোকারস এসোসিয়েশনের সভাপতি শরিফ আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।

বিজনেসজার্নাল/এইচআর

পুঁজিবাজার ও অর্থনীতির সর্বশেষ সবাদ পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজ ‘বিজনেস জার্নাল

ও ফেসবুক গ্রুপ ‘ডিএসই-সিএসই আপডেট’ এর সাথে সংযুক্ত থাকুন।