প্রাইভেটকার খাদে পড়ে নব দম্পতির মৃত্যু

বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক: নওগাঁয় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে প্রাইভেটকার খাদে পড়ে শিশুল হোসেন (২৮) ও জিনিয়া খাতুন (২৪) নামে নব দম্পতির মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। শনিবার দুপুর ১টার দিকে নওগাঁ-রাজশাহী আঞ্চলিক মহাসড়কে মহাদেবপুর উপজেলার নওহাটা মোড়ের ভামপুর খোর্দ্দনারায়নপুর লাটাহার ব্রীজে এই দুর্ঘটনা ঘটে। 

নিহতদের মধ্যে শিমুল জেলার মান্দা উপজেলার কাঁশোপাড়া ইউনিয়নের কুলিহার গ্রামের ইট ব্যাবসায়ী মো. আব্দুল খালেকের ছেলে ও জিনিয়া খাতুন শিশুলের স্ত্রী।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব

মহাদেবপুর থানার অফিসার্স ইনচার্জ আজম উদ্দিন মাহমুদ জানায়, মাত্র কয়েকদিন আগে তারা বিবাহ-বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছে। ওইদিন দুপুরে তারা নিজস্ব প্রাইভেটকার যোগে শিমুল নিজে গাড়ি চালিয়ে স্ত্রীকে সাথে নিয়ে গ্রামের বাড়ি থেকে নওগাঁ শহরের দিকে আসছিলেন। ঘটনাস্থলে হঠাৎ করে সেখানে নির্মাণাধীন সাইলোতে মাটি ভরাটের কাজে নিয়োজিত একটি মাটি বোঝাই ট্রাক ওই কারের সামনে রাস্তায় উঠে পড়ে। ওই ট্রাককে সাইড দিতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ব্রীজের রেলিং ভেঙ্গে রাস্তার পূর্ব পার্শ্বের গভীর খাদে পড়ে পানিতে নিমজ্জিত হয়ে প্রাইভেট কারটি।

এসময় স্থানীয় লোকজন এবং নওহাটা পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা এসে গাড়ির গ্লাস ভেঙ্গে গুরুত্বর আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে নওগাঁ হাসপাতালে নিয়ে আসে। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের দুইজনকে মৃত ঘোষণা করে। 

এদিকে দুর্ঘটনার প্রায় আধাঘন্টা পর নওগাঁ ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে পানিতে নিমজ্জিত প্রাইভেটকারটি উদ্ধার করে। মহাদেবপুর থানার অফিসার্স ইনচার্জ আরও জানায়, পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় কোন অভিযোগ না করাই এবং পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই পিতার নিকট মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে। 

এদিকে পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়। মাত্র কিছুদিন আগে শিমুল জিনিয়ার বিয়ে হয়। জিনিয়া ৩ মাসের অন্তঃসত্ত্বা বলে জানা গেছে। এদিকে এর আগে গত ২৪ জুন একই এলাকায় মাটি বোঝাই ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষে সিএনজির ৫ যাত্রী নিহত হয়। এরই মধ্যে চারজনেই ছিলেন শিক্ষক।

ঢাকা/এসএ