লা লিগায় মাঠে নামবে রিয়াল মাদ্রিদ। ম্যানুয়েল মার্টিনেজ স্টেডিয়ামে এলচের আতিথ্য নেবে লস ব্লাঙ্কোরা। বছরের শেষ ম্যাচটা জিতে টেবিলের শীর্ষে উঠার লক্ষ্য জিনেদিন জিদানের। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত আড়াইটায়।

মৌসুমের শুরুটা কোনভাবেই আর মনে করতে চাইবে না রিয়াল মাদ্রিদ সমর্থকরা। ছোট বড় সব দলের বিপক্ষে একের পর এক হার, দেয়ালে পিঠ ঠেকিয়ে দিয়েছিলো জিনেদিন জিদানের। চাকরিটা নিয়েও শঙ্কা জেগেছিলো এক মুহূর্তে। কিন্তু, ম্যাজিক ম্যান আবারো মুগ্ধ করেছেন তার জাদুতে।

শেষ ৬ ম্যাচে অজেয় রিয়াল মাদ্রিদ। কি লিগ, কি ইউসিএল কোথাও পাত্তা পায়নি প্রতিপক্ষরা। অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ, সেভিয়া, গ্রানাডা সবাই মুখ থুবড়ে পড়েছে সাদা জার্সির করতলে। ফলাফল, টেবিলের শীর্ষ জায়গাটায় নিঃশ্বাস দূরত্ব দাঁড়িয়ে জিজু শিষ্যরা।

এলচের বিপক্ষে এ ম্যাচে পরিষ্কার ফেভারিট রিয়াল মাদ্রিদ। কারণটা, যে শুধু তাদের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স তা কিন্তু নয়। অতীত ইতিহাসও কথা বলছে অতিথিদের হয়ে। শেষ দেখা হওয়া ৪ ম্যাচেই জয় পেয়েছে রিয়াল। যেখানে গোল স্কোরিং অ্যাভারেজটাও দুর্দান্ত তাদের।

তবে, স্কোয়াড নিয়ে স্বস্তিতে নেই জিনেদিন জিদান। করোনা পরবর্তী মৌসুমে টানা খেলার ধকল সামলে উঠতে পারছে না তার ফুটবলাররা। একের পর এক ইনজুরি তারই প্রমাণ।

রিয়াল মাদ্রিদ কোচ জিনেদিন জিদান বলেন, ‘ছেলেরা ভালো ছন্দে আছে। বছরের শেষ ম্যাচটা একই ধারাবাহিকতায় জিততে চাই। আমাদের ইনজুরি সমস্যাটা মৌসুমের শুরু থেকেই ভোগাচ্ছে। এখানে আসলে আমাদের কিছুই করার নেই। তবে, সুখবর হচ্ছে হ্যাজার্ড খেলার জন্য ফিট হয়েছে। এ ম্যাচে আমি তাকে নামাবো। দেখা যাক, ও কি অবস্থায় আছে।’

উড়ন্ত রিয়ালের সামনে এলচের অবস্থা একেবারে তথৈবচ। লা লিগায় উন্নীত হয়ে মৌসুমে একেবারেই ভালো কিছু করতে পারেনি তারা। ১৩ ম্যাচে মাত্র ৩ জয় নিয়ে রেলিগেশন জোনে আটকে আছে আলমিরন বাহিনী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here