বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক: হাজার মানুষের মধ্যে বন্ধু হয় সে, যে আপনার মনের মতো। আর একারণেই বন্ধুত্ব থেকে প্রেম হয়ে যাওয়া অস্বাভাবিক নয়। আপনি হয়তো তাকে বন্ধুর চোখে দেখেন কিন্তু সে আপনাকে ঠিক বন্ধু না ভেবে তার চেয়েও খানিকটা বেশি কিছু ভাবতে পারে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বন্ধুটি তা প্রকাশ করে না বন্ধুত্ব নষ্ট হয়ে যাওয়ার ভয়ে। মুখে কিছু প্রকাশ না করলেও মনে মনে ঠিকই আপনাকে অনেক ভালোবাসেন। ভালো এবং মন্দ সময়ে সে আপনার পাশে থাকে, আপনাকে আনন্দে রাখার চেষ্টা করে।

আপনারও যদি এমন কোনো বন্ধু থাকে তবে সতর্ক হোন। সে কি আপনাকে কেবল বন্ধু ভাবে না-কি মনে মনে পছন্দ করে সেদিকে খেয়াল করুন। কিছু লক্ষণ রয়েছে যেগুলো দেখলে আপনি বুঝতে পারবেন, আপনার বন্ধুটি আসলে আপনার প্রেমে পড়েছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক সেই লক্ষণগুলো সম্পর্কে-

আপনি ডাকলেই সে ছুটে আসে। আপনার কোনো প্রয়োজন বা সমস্যায় তাকে সব সময়ই পাশে পান। যেকোনো সময়ে ডাকলে সে সবকিছু ফেলে আপনাকে প্রাধান্য দেয়। মোট কথা হলো, আপনাকে সে উপেক্ষা করতে পারে না। এমনটা যদি হয়ে থাকে তবে বুঝবেন, তার মনে আপনার জন্য প্রেম জন্মেছে। 

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব 

না বলে না

তাকে যেকোনো অনুরোধ করলে সে তা রাখার সর্বাত্মক চেষ্টা করে। আপনাকে কখনোই সে না বলে না। যদি কখনো খুব বেশি ব্যস্ত থাকে, তখন হয়তো আপনার কথা রাখা সম্ভব হয় না। কিন্তু বেশিরভাগ সময়েই সে আপনার কথা রাখার চেষ্টা করে।

আপনার পাশে থাকে

বন্ধুর পাশে বন্ধুকে পাওয়া যাবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু আপনার জন্য তার পাশে থাকাটা একটু হলেও আলাদা। ধরুন আপনি তাকে রাত দুইটায় মেসেজ করলেন, সে ঠিক তখনই আপনাকে রিপ্লাই করবে। আপনার মন খারাপের কথা তাকে আলাদা করে বলতে হবে না, নিজ থেকেই বুঝে নেবে। 

মাঝেমাঝেই জানান দিতে চায়

বন্ধুর সঙ্গে আড্ডা হয়, বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনাও হয়। কিন্তু আপনার বন্ধুটি হয়তো আড্ডার মধ্যেই এমন কোনো কথা বললো যা আপনার প্রতি তার বাড়তি ভালোবাসার জানান দেয়। সে আপনার দিকে তাকিয়ে থাকতে পারে। কখনোবা আপনাকে ভালোবাসার বার্তা পাঠাতে পারে। তার কোনো কোনো আচরণে আপনার প্রতি তার ভালোলাগার বিষয়টি প্রকাশ পাবেই।

আপনার করণীয় কী

এক্ষেত্রে প্রথমে ভাবুন, আপনি কি তার প্রতি ইতিবাচক? অর্থাৎ আপনি কি তাকে পছন্দ করেন বা ভালোবাসেন? যদি তাই হয় তবে আপনিও ইঙ্গিতের মাধ্যমে তাকে বুঝিয়ে দিন ভালোবাসার কথা। আপনিও তার পাশে থাকুন। সম্ভব হলে জানান যে আপনি তাকে ভালোবাসেন। 

আপনি যদি তাকে শুধুই বন্ধু ভাবেন, তবে অন্য বন্ধুদের থেকে তাকে আলাদা করে দেখবেন না। তাকে যখন তখন ডাকা বন্ধ করুন, বন্ধু হিসেবে যতটুকু সম্ভব তার বেশি সাহায্য নেবেন না। তার সঙ্গে বাড়তি কোনো সময় কাটাবেন না। তাকে যে আপনি বিশেষ নজরে দেখেন না, তা কথার মাধ্যমে বুঝিয়ে দিন। অযথাই তাকে কোনো মিথ্যা আশার মধ্যে রাখবেন না। 

ঢাকা/এনইউ

আরও পড়ুন: