বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক: করোনাকালীন ঘোষিত ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেটে সরকার ঘোষিত প্যাকেজগুলোর ফলে বৃহৎ শিল্প মালিকরা উপকৃত হলেও এসএমই খাত সেভাবে উপকৃত হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন ব্যবসায়ী নেতারা। গতকাল দ্য চিটাগং চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (সিসিসিআই) উদ্যোগে প্রস্তাবিত বাজেট ২০২১-২২-এর ওপর আয়োজিত এক ওয়েবিনারে এমন মন্তব্য করেন বক্তারা।

সিসিসিআইয়ের সভাপতি মাহবুবুল আলমের সভাপতিত্বে ওয়েবিনারে বিশেষ অতিথি ছিলেন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন ফরেন ইনভেস্টরস চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফআইসিসিআই) সভাপতি রূপালী হক চৌধুরী, বিজিএমইএর সভাপতি ফারুক হাসান, বাংলাদেশ সিমেন্ট ম্যানুফ্যাকচার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিসিএমএ) সভাপতি মো. আলমগীর কবির, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) চেয়ারম্যান আসিফ ইব্রাহিম এবং ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশের এক্সিকিউটিভ কমিটি ও বাংলাদেশ হাউজ বিল্ডিং ফাইন্যান্স করপোরেশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. সেলিম উদ্দিন।

এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন বলেন, বেসরকারি খাতে বিনিয়োগ বেশি না হলেও সরকারি ব্যয়ের কারণে জিডিপি বৃদ্ধি পেয়েছে। করোনাকালের দ্বিতীয় বাজেটে সরকার ঘোষিত প্যাকেজগুলোর ফলে বৃহৎ শিল্প মালিকরা উপকৃত হলেও এসএমই খাত সেভাবে উপকৃত হয়নি।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব

সূচনা বক্তব্যে সিসিসিআই সভাপতি মাহবুবুল আলম প্রস্তাবিত বাজেটকে দূরদর্শী বলে মূল্যায়ন করে বলেন, ঘোষিত বাজেট ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ গড়ার জাতীয় লক্ষ্যের সঙ্গে সংগতিপূর্ণ। তিনি বলেন, করপোরেট করহার হ্রাস, বিভিন্ন সেক্টরে কর অব্যাহতি ও কর অবকাশ প্রদান সরকারের বেসরকারি বিনিয়োগ বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে।

এফআইসিসিআইয়ের সভাপতি রূপালী হক চৌধুরী বলেন, সরকার যদিও অবকাঠামো উন্নয়নে প্রচুর কাজ করছে এবং অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তুলছে, তবে বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষণের জন্য আইনগত ও নীতিগত দিকে আরো অনেক উন্নয়ন এবং সমন্বয় অপরিহার্য।

বিজিএমইএর সভাপতি ফারুক হাসান বলেন, তৈরি পোশাক খাতে ১ শতাংশ প্রণোদনা রফতানি বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে। নন-কটন পণ্য তৈরিতে আরো বেশি সুযোগ-সুবিধা দিতে হবে এবং জিএসপি প্লাস সুবিধা গ্রহণে দ্বি-স্তরভিত্তিক অর্থাৎ ফ্যাব্রিকসসহ মূল্য সংযোজন বৃদ্ধি করতে হবে।

বিসিএমএর সভাপতি মো. আলমগীর কবির বলেন, দেশে ৩৭টি সিমেন্ট উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান প্রায় ৪২ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে। এ খাত অবকাঠামো উন্নয়নের মাধ্যমে রাজস্ব আয় ও জিডিপিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

সিএসইর চেয়ারম্যান আসিফ ইব্রাহিম বলেন, করোনা বর্তমানে ব্রোকারেজ হাউজের পরিচালনা ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে। করপোরেট কর হ্রাস করা হলেও দুই ধরনের কোম্পানির কর পার্থক্য আরো যৌক্তিক হলে শেয়ারবাজারের প্রতি আগ্রহ বেড়ে যাবে।

ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের নির্বাহী কমিটি ও বাংলাদেশ হাউজ বিল্ডিং ফাইন্যান্স করপোরেশনের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. সেলিম উদ্দিন বলেন, কর অব্যাহতির কারণে রাজস্ব আহরণ কমে গেলে এবং সরকারের ব্যয় বেশি হলে অভ্যন্তরীণ ঋণের ওপর চাপ পড়তে পারে।

ঢাকা/এনইউ

আরও পড়ুন: