বোলিং বুটে ফুটবল খেলে বিপত্তি

অনুশীলনে বোলিং বুট পরে ফুটবল পাসিং করতে গিয়ে বিপত্তি ডেকে আনলেন পেস বোলিং অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিন। ঘাসের সঙ্গে স্পাইক আটকে গোড়ালি মচকে গেছে তার। চোট নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে তার। ফিজিওর অধীনে প্রাথমিক চিকিৎসা নিচ্ছেন রাজশাহীর এ পেসার। ২৪ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে থাকবেন তিনি।

রাজশাহীর প্রধান কোচ সারওয়ার ইমরান বলেন, ‘ওরা ফুটবল খেলছিল না। দাঁড়িয়ে রিসিভিং ও পাসিং করছিল। মাটিতে স্পাইক আটকে গেলে গোড়ালিতে ব্যথা পায়। চোট কতটা গুরুতর ফিজিও জানাতে পারেনি। কাল (আজ) সকালে মূল্যায়ন রিপোর্ট দেওয়ার পর বুঝতে পারব খেলতে পারবে কিনা।’

রাজশাহীর মূল ক্রিকেটার সাইফউদ্দিন। ড্রাফটের টেবিলে আইকন মাহমুদুল্লাহকে ছেড়ে দিয়ে এ অলরাউন্ডারকে দলে টানেন কোচ ইমরান। চোট পাওয়ায় এখন তাকে ছাড়াই খেলতে হতে পারে দলটিকে।

ম্যানেজার হান্নান সরকার বলেন, ‘মনে হয় না প্রথম ম্যাচ খেলতে পারবে। ফিজিও কাল সিদ্ধান্ত নিয়ে করণীয় ঠিক করবেন। বিসিবির প্রধান চিকিৎসকও ফলোআপ করছে।’

অনুশীলনে ফুটবল খেলতে গিয়ে তারকা ক্রিকেটারদের চোটে পড়ার ঘটনা নতুন নয়। কয়েক বছর আগে কক্সবাজার সমুদ্রসৈকতে ফুটবল খেলতে গিয়ে পায়ের আঙুল মচকে গিয়েছিল পেসার সাহাদাত হোসেনের। যদিও সেখানে দুর্ঘটনা ঘটেছিল বালুর ভেতরে আঙুল ঢুকে যাওয়ায়। তবে দুর্ঘটনা এড়াতে সাধারণ ক্রিকেটের অনুশীলনে স্পাইক বুট পরে ফুটবল খেলতে নিরুৎসাহী করা হয়। কেডস পরে গা গরমে ফুটবল খেলেন সাকিবরা। গতকাল সাইফউদ্দিন বড় ভুল করেছেন সেখানে।