ব্রাহ্মণবাড়িয়া হরতালে ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগে আগামী ৪ এপ্রিলের মধ্যে হেফাজতের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেফতার করার আল্টিমেটাম দিয়েছে জাতীয় ওলামা মাশায়েখ শেখ ঐক্য পরিষদ।

সোমবার (২৮ মার্চ) রাজধানীর প্রেসক্লাবে জাতীয় ওলামা মাশায়েখ শেখ ঐক্য পরিষদ পক্ষ থেকে এক মানববন্ধনে এ আল্টিমেন্টাম দেন পরিষদের নেতাকর্মীরা।

এদিকে ধ্বংসস্তূপের শহরে এখন পরিণত হয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া। হেফাজতে ইসলামের আহ্বানে বিক্ষোভ, হরতালে চালানো তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড বিভিন্ন স্থাপনা। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর একাধিক প্রতিকৃতি ভাঙচুরসহ সরকারি বেসরকারি অন্তত অর্ধশত স্থাপনা ভাঙচুর করে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। 

এ কারণেই হেফাজতের কেন্দ্রীয় নেতা মাওলানা মামুনুল হককে গ্রেফতার করার আল্টিমেটাম দিয়েছে ওলামা মাশায়েখ শেখ ঐক্য পরিষদ।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: বিজনেসজার্নালবিজনেসজার্নাল.বিডি

হেফাজতের তাণ্ডবে পুড়ে গেছে রেলস্টেশেনের সার্ভার রুম। এ কারণে দেখানে থামছে না ট্রেন। রেলস্টেশনের সার্ভার রুমে আগুন দেয়ার পাশাপাশি উপড়ে ফেলা হয় রেলের স্লিপারও। টিকিট বিক্রিও বন্ধ। এছাড়া উপজেলা ভূমি অফিসসহ বেশ কয়েকটি সরকারি অফিস অনেকটাই পরিত্যক্ত।
 হামলার ঘটনায় এখনও আতঙ্ক কাটেনি স্থানীয়দের। ঘটনায় জড়িতদের বিচারের দাবি জানানো হয়।

অন্যদিকে, গত শনিবার (২৭ মার্চ) নেতাকর্মীদের ওপর হামলার অভিযোগ এনে রাজধানীসহ সারা দেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে হেফাজতে ইসলাম। কর্মসূচি থেকে হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হক বলেন, রোববারের (২৮ মার্চ) হরতাল কর্মসূচিসহ তাদের কর্মসূচিতে যেখানেই বাধা দেয়া হবে, সেখানেই প্রতিহত করা হবে।

কর্মসূচিতে নেতারা বলেন, রোববারের হরতালে বাধা দেওয়া হলে আরও কঠোর কর্মসূচি দেওয়া হবে। রাজধানীর উত্তরাতেও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেন হেফাজত নেতাকর্মীরা। উত্তরা পলওয়েল মার্কেটের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করেন তারা। এ সময় হেফাজতের ডাকা হরতালকে সফল করতে নেতাকর্মীদের মাঠে থাকার আহ্বান জানানো হয় বিক্ষোভ কর্মসূচি থেকে।

বিজনেসজার্নাল/ঢাকা/এনইউ

 

আরও পড়ুন:

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here