পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে থাকা শেফিল্ড ইউনাইটেডের বিপক্ষে হতাশ হতে হলো শিরোপা রেসে থাকা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ২-১ গোলে হেরেছে রেড ডেভিলরা। আরেক ম্যাচে নতুন কোচ থমাচ টাচেলের নেতৃত্বে প্রথম ম্যাচে ড্র করেছে চেলসি। উলভারহ্যামটনের বিপক্ষে স্কোর লাইন থাকে গোলশূন্য। 

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড যখন শেফিল্ড ইউনাইটেডকে আতিথ্য দিচ্ছিল তখন নিশ্চয়ই পেপ গার্দিওলা খুব করে চাই ছিলেন একটা অঘটন ঘটুক ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে। কারণ ইপিএল রেসে সিটিজেনদের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে নগর প্রতিদ্বন্দ্বীরাই। এদিন অবশ্য হলোটাও তাই।

টেবিলের একেবারে তলানির দল শেফিল্ড অন্যদিকে জয় পেলেই ম্যানসিটিকে হটিয়ে আবারো শীর্ষস্থান দখলে নেবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। তা ছাড়া ম্যাচটা ঘরের মাঠে। যেখানে ১৯৯২ সালের পর কখনোই দলটার বিপক্ষে হারতে হয়নি তাদের। এত সব হিসাব-নিকাশ গুলিয়ে গেল মাঠের খেলায়। 

বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে থাকলেও, কাজের কাজটা করেছে অতিথিরা। ১৬ মিনিটে ২ আক্রমণ আর পাল্টা আক্রমণ হয়েছে ঠিকই কিন্তু গোল আসেনি। 

২৩ মিনিটে একেবারে চমকে দেন ব্রয়ান। ফ্লিকের কর্নার থেকে পাওয়া বল মাথা ছুঁইয়ে আছড়ে পড়ে জালে। ১-০ গোলের লিড নেয় শেফিল্ড ইউনাইটেড। এরপর প্রথমার্ধের বাকি সময়টা ব্যর্থ চেষ্টা করে গেছে কিন্তু সমতায় ফিরতে পারেনি স্বাগতিকরা।

দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণে ধার বাড়ায় ম্যান ইউনাইটেড। ফলটা পেতে অপেক্ষা করতে হয় ১৯ মিনিট। ৬৪ মিনিটে কর্নার থেকে সমতায় ফিরে রেড ডেভিলরা। টেলেসের পাস থেকে বল জালে পাঠান অধিনায়ক হ্যারি ম্যাগুয়েরে। 

এদিন হয়তো ফুটবল বিধাতা বিমুখই ছিল ওলে গানার শোলশায়ার শিষ্যদের ওপর। না হলে টেবিলের তলানিতে থাকা দলটার বিপক্ষে তাদের লিডটা হবে মাত্র ১০ মিনিটের। ৭৪ মিনিটে ব্রুক গোল করলে আবারো পিছিয়ে পড়ে ম্যানচেস্টারের ক্লাবটি। শেষ পর্যন্ত আর কোনো গোল না হলে ২-১ গোলের হার নিয়ে মাঠ ছাড়ে ম্যান ইউনাইটেড। ফলে টেবিলের শীর্ষে ওঠা হলো না তাদের।

এদিকে আরেক ম্যাচে চেলসি শিবিরে থমাচ টাচেল তার ক্যারিয়ারের শুরুটা করল ড্র দিয়ে। দলের দুরবস্থার কারণে মঙ্গলবারই বহিষ্কার হন ফ্রেঙ্ক ল্যাম্পার্ড। যদিও গত ম্যাচে জয়ে রেখে গিয়ে ছিল দলটিকে। কিন্তু দায়িত্ব নিয়েই পয়েন্ট ভাগাভাগি করতে হলো জার্মান কোচকে।

টাচেলের চিরচেনা ফরম্যাশন ৩-৪-৩’য়ে খেলিয়েও ফল আসেনি। একটা গোলের আশায় পরিবর্তন করেছেন একের পর এক। শেষ পর্যন্ত পয়েন্ট ভাগাভাগি করেই মাঠ ছাড়তে হলো। ল্যাম্পার্ডের মতো ব্লু শিবিরে তার শুরুটাও হলো ড্র দিয়ে।