যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম কোনও ব্যক্তির শরীরে করোনার নতুন ধরন পাওয়া গেছে। কলোরাডো অঙ্গরাজ্যে এক যুবককে নতুন ধরনের করোনার প্রথম আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত করা হয়। রাজ্যের গভর্নর কার্যালয় থেকে মঙ্গলবার (২৯ ডিসেম্বর) বিকেলে এ তথ্য জানানো হয়েছে। 

২০ বছর বয়সী ওই যুবককে এখন আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে ওই যুবক কোথাও ভ্রমণ না করলেও যুক্তরাজ্যে শনাক্ত উচ্চ সংক্রমিত করোনার ধরন কিভাবে তাকে সংক্রমিত করল তা নিয়ে বিশ্লেষণ করছেন স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা।

তারা বলেছেন, করোনার নতুন ধরনে সংক্রমিত রোগীর সান্নিধ্যে কারা কারা এসেছিলেন, তাদের শনাক্তে তারা কাজ করছেন। এছাড়া আরও কেউ এই ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন কি না, তা যাচাই করে দেখছেন।

এদিকে, করোনায় ভয়াবহ বিপর্যস্ত ক্যালিফোর্নিয়া। লস অ্যাঞ্জেলেসে মঙ্গলবার (২৯ ডিসেম্বর) একদিনে মারা গেছেন ২২৭ জন। যা এ যাবৎ কালের সকল রেকর্ডকে ভঙ্গ করেছে। হাসপাতালগুলোতে শয্যা সংকটের পাশাপাশি অক্সিজেন ও এ্যাম্বুলেন্সেরও সংকট দেখা দিয়েছে।

এ মৃত্যুর মিছিলে আশংকাজনক ভাবে প্রবাসী বাংলাদেশির সংখ্যাও বাড়ছে। গত সাত দিনে ছয় জন প্রবাসী বাংলাদেশি মারা গেছেন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে প্রায় অর্ধ সহাস্রাধিক। 

এদিকে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ উপেক্ষা করেই বড়দিনের ছুটিতে ভ্রমণ অব্যাহত রেখেছেন অনেকেই।

ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর গেভিন নিউসম জানিয়েছেন, তিন ধাপে টিকা প্রদান কার্যক্রম চালানো হচ্ছে। তবে টিকা প্রদান প্রক্রিয়ার ধীর গতি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন দেশটির নাগরিকরা। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে সামনে অবস্থা আরো ভয়াবহ আকার ধারণ করবে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here