বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক: রাজধানী ঢাকাসহ দেশের কয়েকটি জেলায় ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। রিখটার স্কেলে যার মাত্রা ছিল ৬। বুধবার (২৮ এপ্রিল) বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টা ২১ মিনিটে ভূমিকম্পটি অনুভূত হয়। 

মার্কিন ভূ-তাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) জানায়, ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল আসাম থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে। যার প্রভাব পড়ে বাংলাদেশ, ভারত, ভুটার, মিয়ানমান এবং চীনে। সেখানে রিখটার স্কেলে এর মাত্রা ছিল ৬। 

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: বিজনেসজার্নালবিজনেসজার্নাল.বিডি

দশ সেকেন্ডের বেশি স্থায়ী এ ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে ঘরবাড়ি। এরই মধ্যে টুইটারসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ সংক্রান্ত তথ্য জানাচ্ছে সবাই। ভূমিকম্পের ফলে আসাম এবং গুয়াহাটির বেশ কয়েটিস্থানে দেয়াল ধসে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। লোকজনকে আতঙ্কে বাইরে বের হয়ে আসার ছবি বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ পেয়েছে।

বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ ড. আবুল কালাম মল্লিক গণমাধ্যমকে জানান, দেশের ঢাকাসহ উত্তর ও উত্তর পূর্বদিকে ৬ দশমিক শূন্য মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থল আসামে। যা ঢাকা আবাহওয়া অধিদফতর আগারগাঁও থেকে ৩৯৭ কি.মি. দূরে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, এটি শক্তিশালী ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে।

রিখটার স্কেলে ৫ থেকে ৫ দশমিক ৯ পর্যন্ত মাত্রাকে মাঝারি ধরনের ভূমিকম্প ধরা হয়। আর ৪ দশটিক ৯ মাত্রার ভূমিকম্প হলে তাকে মৃদু ধরনের ভূমিকম্প বলা হয়। আর ৬ থেকে শক্তিশালী মাত্রার ভূমিকম্প হয়। 

ঢাকা/এনইউ

আরও পড়ুন: