শিগগিরই ধান ও চালের দাম কমে আসবে বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক।বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয় থেকে অনলাইনে বোরো ধান কাটার উদ্বোধন করে এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

এ সময় কৃষিমন্ত্রী বলেন, হাইব্রিডের উৎপাদন ক্ষমতা বেশি হওয়ায় চলতি বছর ২ লাখ হেক্টর জমিতে অতিরিক্ত হাইব্রিড ধান লাগানো হয়েছে। এ বাবদ প্রণোদনা দেয়া হয়েছে ৭৩ কোটি টাকা। লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে আরো এক লাখ হেক্টর বেশি জমিতে হাইব্রিড বোরো ধান উৎপাদন হয়েছে। এর ফলে ৩ লাখ টন বেশি ধান উৎপাদন হবে।

মন্ত্রী বলেন, বর্তমানে চালের দাম স্থিতিশীল হলেও তা স্বাভাবিকের তুলনায় বেশি। নানা কারণে এ দাম বেড়েছে। প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান ছিল কোনো মানুষ যেন করোনার কারণে না খেয়ে না থাকে। ধান ও চালের দাম বাড়ায় শুরু থেকেই টার্গেট ছিল বেশি উৎপাদনের। ৪৮ লাখ হেক্টর জমিতে ২ কোটি টন বোরো উৎপাদনের লক্ষ্য ছিল। সে অনুযায়ী ফলন পাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী সরকার।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: বিজনেসজার্নালবিজনেসজার্নাল.বিডি

তিনি বলেন, গত মৌসুমে আউশে ৩৫ লাখ টন ধান উৎপাদনের লক্ষ্য ছিল। আগামী বছর আউশ তার চেয়ে বেশি উৎপাদন করা হবে। গত বছর আমনের উৎপাদন কম হওয়ায় চালের দাম বেড়েছে। আমনের উৎপাদন নির্ভর করে প্রকৃতির ওপর। বন্যার কারণে সেটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়। হাইব্রিড চাষ করার কারণে ১০-১৫ দিন আগেই এবার বোরোর ধান এসেছে। আশা করা হচ্ছে হাওরে ধানের চাষ বাড়ানো যাবে।

মন্ত্রী আরো বলেন, করোনায় খাদ্য নিয়ে যাতে কোনো আতঙ্কের মধ্যে পড়তে না হয়, সে জন্য কাজ করছে সরকার। কৃষকরা যাতে ভালো দাম পায়, সে অনুযায়ী ধান কেনা হবে।

বিজনেসজার্নাল/ঢাকা/এনইউ

আরও পড়ুন:

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here