০৬:৩০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪

সঞ্চয়পত্র নির্ভরতা কমছে ৪৯ শতাংশ

বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক:
  • আপডেট: ০৫:২৭:৩৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ জুন ২০২৩
  • / ১০৩৫৬ বার দেখা হয়েছে

সরকার ২০২৩-২০২৪ অর্থবছরের ঘাটতি মেটাতে সঞ্চয়পত্র বিক্রি করে ১৮ হাজার কোটি টাকা ঋণ নেওয়ার পরিকল্পনা করেছে। এটি চলতি ২০২২-২৩ অর্থবছরের তুলনায় ৪৮ দশমিক ৫৭ শতাংশ বা ১৭ হাজার কোটি টাকা কম। চলতি অর্থবছর সঞ্চয়পত্র বিক্রি করে সরকারের নেওয়া ঋণের পরিমাণ ৩৫ হাজার কোটি টাকা।

বৃহস্পতিবার (১ জুন) জাতীয় সংসদে ২০২৩-২৪ অর্থবছরের জন্য ৭ লাখ ৬১ হাজার ৭৮৫ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউভ

বাজেটের ঘাটতি ধরা হয়েছে ২ লাখ ৫৭ হাজার ৮৮৫ কোটি টাকা। প্রস্তাবিত এ বাজেটে অনুদান ছাড়া ঘাটতির পরিমাণ দাঁড়াবে ২ লাখ ৬১ হাজার ৭৮৫ কোটি টাকা। এটি মোট জিডিপির ৫ দশমিক ২ শতাংশ।

প্রস্তাবিত এ বাজেটে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৪ লাখ ৫০ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) লক্ষ্যমাত্রা ৪ লাখ ৩০ হাজার কোটি টাকা। কর বহির্ভূত ও অন্যান্য আয়ের লক্ষ্য ২০ হাজার কোটি টাকা, কর ছাড়া প্রাপ্তি ৫০ হাজার কোটি টাকা এবং বৈদেশিক অনুদান থেকে সংগ্রহ হবে ৩ হাজার ৯০০ কোটি টাকা।

আরও পড়ুন: ঘাটতি মেটাতে বাড়ছে ব্যাংক নির্ভরতা

জাতীয় সঞ্চয় অধিদফতরের সর্বশেষ হালনাগাদ তথ্যমতে, চলতি ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রথম দশ (জুলাই-এপ্রিল) মাসে গ্রাহক যে পরিমাণ সঞ্চয়পত্র কিনেছেন তার চেয়ে বেশি ভাঙিয়েছেন। এ ১০ মাসে ৬৮ হাজার ৩৮ কোটি ৭৩ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্র বিক্রি হয়েছে। বিপরীতে মুনাফা ও মূল বাবদ পরিশোধ করা হয়েছে ৭১ হাজার ৬১৮ কোটি ৫২ লাখ টাকা। অর্থাৎ বিক্রির চেয়ে ৩ হাজার ৫৮০ কোটি টাকার বেশি ভাঙিয়েছেন গ্রাহক।

ঢাকা/এসএ

শেয়ার করুন

x

সঞ্চয়পত্র নির্ভরতা কমছে ৪৯ শতাংশ

আপডেট: ০৫:২৭:৩৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১ জুন ২০২৩

সরকার ২০২৩-২০২৪ অর্থবছরের ঘাটতি মেটাতে সঞ্চয়পত্র বিক্রি করে ১৮ হাজার কোটি টাকা ঋণ নেওয়ার পরিকল্পনা করেছে। এটি চলতি ২০২২-২৩ অর্থবছরের তুলনায় ৪৮ দশমিক ৫৭ শতাংশ বা ১৭ হাজার কোটি টাকা কম। চলতি অর্থবছর সঞ্চয়পত্র বিক্রি করে সরকারের নেওয়া ঋণের পরিমাণ ৩৫ হাজার কোটি টাকা।

বৃহস্পতিবার (১ জুন) জাতীয় সংসদে ২০২৩-২৪ অর্থবছরের জন্য ৭ লাখ ৬১ হাজার ৭৮৫ কোটি টাকার বাজেট প্রস্তাব উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউভ

বাজেটের ঘাটতি ধরা হয়েছে ২ লাখ ৫৭ হাজার ৮৮৫ কোটি টাকা। প্রস্তাবিত এ বাজেটে অনুদান ছাড়া ঘাটতির পরিমাণ দাঁড়াবে ২ লাখ ৬১ হাজার ৭৮৫ কোটি টাকা। এটি মোট জিডিপির ৫ দশমিক ২ শতাংশ।

প্রস্তাবিত এ বাজেটে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৪ লাখ ৫০ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) লক্ষ্যমাত্রা ৪ লাখ ৩০ হাজার কোটি টাকা। কর বহির্ভূত ও অন্যান্য আয়ের লক্ষ্য ২০ হাজার কোটি টাকা, কর ছাড়া প্রাপ্তি ৫০ হাজার কোটি টাকা এবং বৈদেশিক অনুদান থেকে সংগ্রহ হবে ৩ হাজার ৯০০ কোটি টাকা।

আরও পড়ুন: ঘাটতি মেটাতে বাড়ছে ব্যাংক নির্ভরতা

জাতীয় সঞ্চয় অধিদফতরের সর্বশেষ হালনাগাদ তথ্যমতে, চলতি ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রথম দশ (জুলাই-এপ্রিল) মাসে গ্রাহক যে পরিমাণ সঞ্চয়পত্র কিনেছেন তার চেয়ে বেশি ভাঙিয়েছেন। এ ১০ মাসে ৬৮ হাজার ৩৮ কোটি ৭৩ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্র বিক্রি হয়েছে। বিপরীতে মুনাফা ও মূল বাবদ পরিশোধ করা হয়েছে ৭১ হাজার ৬১৮ কোটি ৫২ লাখ টাকা। অর্থাৎ বিক্রির চেয়ে ৩ হাজার ৫৮০ কোটি টাকার বেশি ভাঙিয়েছেন গ্রাহক।

ঢাকা/এসএ