সপ্তাহের ব্যবধানে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) মূল্য সূচক কমলেও লেনদেন বেড়েছে। ডিএসইতে টাকার অংকে লেনদেন বেড়েছে ১৪.৫০ শতাংশ। তবে গত সপ্তাহে ডিএসইতে দৈনিক গড় লেনদেন কমেছে ৮.৪০ শতাংশ।

ডিএসইর সাপ্তাহিক বাজার পরযালোচনা করলে এ তথ্য পাওয়া যায়। আলোচিত সপ্তাহে ডিএসইতে মোট ৫ কর্মদিবস লেনদেন হয়েছে। আর আগের সপ্তাহে ডিএসইতে ৪ কর্মদিবস লেনদেন হয়েছিল।

এই সময়ে ডিএসইতে ৩ হাজার ৮  কোটি ৮৪ লাখ ২৯ হাজার  টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ২ হাজার ৬২৭ কোটি ৮৫ লাখ ৮২ হাজার  টাকার শেয়ার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৩৮০  কোটি ৯৮ লাখ ৪৭ হাজার  টাকার বা ১৪ দশমিক ৫০ শতাংশ।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন:বিজনেসজার্নালবিজনেসজার্নাল.বিডি

সপ্তাহ শেষে ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স এর অবস্থান দাঁড়ায় ৫ হাজার ৩২৭ দশমিক ২২ পয়েন্ট। সপ্তাহের শুরুতে সূচকটির অবস্থান ছিল ৫ হাজার ৪৩৪ দশমিক ৬৯ পয়েন্টে। সপ্তাহের ব্যবধানে সূচক কমেছে ১০৭ দশমিক ৪৮ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ৯৮ শতাংশ।

ডিএসইর সেরা  কোম্পানির সূচক ডিএসই-৩০ এক সপ্তাহের ব্যবধানে ২ হাজার  দশমিক ৭৩ পয়েন্ট থেকে ২ হাজার ২০ পয়েন্টে নেমে আসে। আর ডিএসই শরীয়াহ সূচক ডিএসইএস এক হাজার ২৪৭ পয়েন্ট থেকে কমে হয়েছে এক হাজার ২১৭ দশমিক ৬৯ পয়েন্ট।

আলোচিত সপ্তাহে ডিএসইতে ৩৭৩টি কোম্পানির শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ৫৩টির বা ১৪ শতাংশ কোম্পানির। আর ৫৯ শতাংশ বা  ২২১টি বা ৫৯ শতাংশ কোম্পানির শেয়ারের দাম কমেছে। এ সময়ে  ৯৪টি কোম্পানির শেয়ারের দাম ছিল অপরিবর্তিত।

বিজনেসজার্নাল/ঢাকা/এনইউ

 

আরও পড়ুন:

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here