বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক: বর্তমান কমিশনের মেয়াদের প্রথম বর্ষের সফল সমাপ্তির জন্য বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের সম্মানিত চেয়ারম্যান এবং সকল কমিশনারকে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ এবং ব্যবস্থাপনার কর্তৃপক্ষের পক্ষ হতে আন্তরিক অভিনন্দন জানায়৷

আজ (১৮ মে ২০২১) বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম এর হাতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ইনচার্জ) এম সাইফুর রহমান মজুমদার, এফসিএ, এফসিএমএ এ অভিনন্দন বার্তা তুলে দেন৷ এ সময় তার সাথে ছিলেন মহাব্যবস্থাপক মোঃ ছামিউল ইসলাম এবং উপ-মহাব্যবস্থাপক মোঃ শফিকুর রহমান৷

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব

অভিনন্দন বার্তায় ডিএসইর চেয়ারম্যান মোঃ ইউনুসুর রহমান বলেন, আপনার নেতৃত্বে বর্তমান কমিশন প্রজ্ঞা ও মেধা দিয়ে স্বল্পতম সময়ে পুঁজিবাজার উন্নয়ন, নিয়ন্ত্রণ ও বিভিন্ন সংস্কারে গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা রেখেছেন৷ এই সময়ে কমিশন কর্তৃক বেশ কিছু চমত্কার উদ্যোগ বিনিয়োগকারী এবং অন্যান্য স্টেকহোল্ডারদের আস্থা বৃদ্ধিতে ব্যাপক ভূমিকা রাখছে৷ আমরা ইতিমধ্যে কমিশনের অসামান্য এবং গতিশীল সিদ্ধান্তের ফলে পুঁজিবাজারের ইতিবাচক প্রভাব লক্ষ্য করছি৷ আমরা বাজারের গুণগতমান এবং আকারের ক্ষেত্রে ইতিবাচক পরিবর্তন আনয়নে আপনার আন্তরিক প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানাই। আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি যে আপনার নিরলস প্রচেষ্টা সামনের দিনগুলোতে বাজারে আরও অধিকতর টেকসই প্রবৃদ্ধি নিশ্চিত করবে।

স্টক এক্সচেঞ্জ প্রাইমারি রেগুলেটরি প্রতিষ্ঠান হিসাবে, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নের চালিকাশক্তি পুঁজিবাজারের স্বার্থে আপনার নেতৃত্বের প্রতি আমাদের সমর্থন সবসময় অব্যাহত থাকবে এবং বাজারের উন্নয়নের জন্য কমিশনের সাথে একযোগে কাজ করবে৷
এই মুহুর্তে আমি একটি ভাল খবর আপনার সদয় অবগতির জন্য জানাতে চাই যে, ডিএসই ডিজাস্টার রিকভারি (ডিআর) সুবিধা সম্বলিত বহুল প্রতীক্ষিত ডেটা সেন্টার (ডিসি) প্রতিষ্ঠায় উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি সাধন করেছে৷ আপনার উদ্ভাবনী ও দূরদর্শী
দিকনির্দেশনায় ডিএসই স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদী কৌশলগত ব্যবসায়িক পরিকল্পনাও তৈরি করেছে৷ যা কমিশনের উদ্দেশ্যসমূহ বাস্তবায়নে সমন্বিত হতে পারে৷
আমরা মনে করি যে, বাজারকে শক্তিশালী করতে কমিশন বর্তমানে যে গতিতে এগোচ্ছে তা বজায় রাখতে প্রয়োজনীয় নীতিগত সহায়তার জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, কেন্দ্রীয় ব্যাংক এবং অন্যান্য নিয়ন্ত্রক সংস্থার সাথে যথাযথ সমন্বয় নিশ্চিত করে বাজারকে অধিকতর শক্তিশালীকরণের মাধ্যমে অদূর ভবিষ্যতে একটি প্রাণবন্ত এবং অত্যন্ত প্রয়োজনীয় ডেট মার্কেট প্রতিষ্ঠা করতেসক্ষম হবে।
আমরা নিশ্চিত যে, সরকার এবং সংশ্লিষ্ট সকলের প্রত্যাশা অনুযায়ী আপনার সফল নেতৃত্ব, প্রজ্ঞা এবং দিক নির্দেশনায় শীঘ্রই দেশের পুঁজিবাজার নতুন উচ্চতায় এবং সাফল্য অর্জন করবে৷

পরিশেষে, তিনি বিএসইসি’র চেয়ারম্যান, কমিশনারদের সুস্বাস্থ্য, সুচিন্তিত মনোভাব এবং একটি সফল সময়কাল কামনা করেন৷

ঢাকা/এনইউ

আরও পড়ুন: