স্মার্টফোন চার্জ দেওয়ার পর যেসব কাজ করা যাবে না

বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক: একটু অসতর্কতার ফলে ঘটতে পারে মারাত্মক দূর্ঘটনা। আপনার প্রিয় স্মার্টফোনটি হতে পারে আপনার বড় শত্রু। আমরা ফোন চার্জ করার সময় নানান কিছু জেনে না জেনে করে থাকি। ফলে ফোনের ব্যাটারি যেমন ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তেমনি ফোনে অগ্নিকান্ড ঘটতে পারে। তাই আসুন স্মার্টফোন চার্জ দেওয়ার সময় এই পরামর্শগুলো মেনে চলি স্মার্টফোন এবং এর ব্যাটারি ভালো রাখি।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব

১. সবসময় আপনার স্মার্টফোনটিকে এর নিজস্ব চার্জার দিয়ে চার্জ করুন। বিকল্প কোনো চার্জার ব্যবহার করতে হলে সেটির আউটপুট ভোল্টেজ (V) এবং কারেন্ট (ampere) রেটিং মূল চার্জারের সঙ্গে মিলিয়ে নিন।

২. সস্তা কোনো চার্জার ব্যবহার করবেন না। কারণ সেগুলো ভোল্টেজের ওঠানামা এবং অতিরিক্ত চার্জিং মোকাবিলা করতে পারে না। ফলে ব্যাটারি চিরতরে নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।

৩. চার্জ করার সময় ফোনটির প্রতিরক্ষামূলক খাপটি খুলে রাখুন। আর নয়তো ফোনটি উত্তপ্ত হয়ে বিস্ফোরণও ঘটতে পারে!

৪. সবসময় দ্রুত চার্জ করা ঠিক নয়। আপনার ফোনে যদি সাধারণ গতিতে চার্জ দেওয়ার অপশন থাকে তাহলে সেভাবেই চার্জ দিন। আর নয়তো নরমাল গতিতে চার্জ হয় এমন কোনো চার্জার ব্যবহা করুন। আর ফোনটি বেশি গরম হয়ে গেলে বন্ধ করে রাখুন।

৫. কখনোই সারারাত ধরে চার্জ দিবেন না। এতে ব্যাটারি দ্রুত ক্ষয়ে যাবে।

৬. থার্ড পার্টি ব্যাটারি অ্যাপস ব্যবহার করবেন না। এতে আপনার ব্যাটারির ক্ষতি হওয়া সহ মোবাইলের অন্যান্য অংশেরও ক্ষতি হবে।

৭. সবসময় ফুল চার্জ দেওয়া উচিত নয়। চার্জ ৮০% হলেই চার্জার খুলে ফেলুন।

৮. ব্যাটারির চার্জ ২০ শতাংশে নেমে না আসা পর্যন্ত পুনরায় চার্জ দিবেন না। বেশি বেশি চার্জ দিলে ব্যাটারি দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়।

৯. ভোল্টেজের ওঠা-নামা, শর্টসার্কিট, অতিরিক্ত বিদ্যুত সরবরাহ এবং অতিরিক্ত চার্জ থেকে রক্ষা করতে একটি পাওয়ার ব্যাঙ্ক কিনে লাগান। এতে ব্যাটারি সহজে নষ্ট হবে না।

১০. চার্জরত অবস্থায় বা পাওয়ার ব্যাঙ্কে লাগানো অবস্থায় ফোন ব্যবহার করবেন না। এতে ফোনের আভ্যন্তরীণ তাপমাত্রা বেড়ে গিয়ে ব্যাটারির স্থায়িত্ব কমিয়ে দিতে পারে।

ঢাকা/এসএম