পুঁজিবাজার থেকে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের মাধ্যমে অর্থ সংগ্রহের লক্ষ্যে বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে কাট-অব প্রাইস নির্ধারণের জন্য বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ার লিমিটেডের বিডিংয়ের (নিলাম) তারিখ পরিবর্তন করা হয়েছে। আগামী  ২২ ফেব্রুয়ারি বিকাল ৫টায় শুরু হবে। চলবে ২৫ ফেব্রুয়ারি বিকাল ৫টায় পর্যন্ত।

এর আগে ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৮ ফেব্রুযারি পর্যন্ত বিডিংয়ের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছিল। অনিবার্য কারণবশত এই সময়কে পরিবর্তন করা হয়েছে। পাবলিক ইস্যু রুল ২০১৫ এর সিএর (১) এর (২) আইন অনুযায়ী বিডিংয়ে অংশ নিতে বাজার মূল্যে কম্পক্ষে ১ কোটি টাকার বিনিয়োগ প্রয়োজন হয়। অনিবার্য কারণে বিডিং পেছানোর ফলে এটি নির্ধারণ করা হয়েছে ১১ ফেব্রুয়ারি। তবে ৭ ও ১১ ফেব্রুয়ারি যেসব প্রতিষ্ঠানের বাজার মূল্যে পুঁজিবাজারে ১ কোটি টাকা বিনিয়োগ রয়েছে এমন সব প্রতিষ্ঠান বারাকা পতেঙ্গার বিডিংয়ে অংশ নিতে পারবে।

এর আগে গত ৫ জানুয়ারি পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৭৫৫তম সভায় কোম্পানিটিকে বিডিংয়ের অনুমোদন দেওয়া হয়।

বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ার বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) মাধ্যমে শেয়ারবাজার থেকে ২২৫ কোটি টাকা উত্তোলন করবে। যা তার সাবসিডিয়ারি কর্ণফুলী পাওয়ার ও বারাকা শিকলবাহা পাওয়ারে বিনিয়োগ, আংশিক দীর্ঘমেয়াদি ঋণ পরিশোধ এবং আইপিওজনিত ব্যয়ে ব্যবহার করা হবে।

কোম্পানিটির ২০১৯-২০ অর্থবছরে সমন্বিতভাবে শেয়ারপ্রতি মুনাফা (ইপিএস) হয়েছে ৪.৩৭ টাকা। আর বিগত পাঁচটি আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী তড়িত গড় হারে শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ৩.৩০ টাকা। ২০২০ সালের ৩০ জুন কোম্পানিটির সমন্বিতভাবে শেয়ারপ্রতি নিট সম্পত্তি মূল্য (এনএভিপিএস) দাঁড়িয়েছে ২৩ টাকায়।কোম্পানিটির ইস্যু ব্যবস্থাপকের দায়িত্বে রয়েছে লংকাবাংলা ইনভেস্টমেন্টস। কোম্পানিটির রেজিস্ট্রার টু ইস্যু হিসেবে রয়েছে ইউনিক্যাপ ইনভেস্টমেন্ট।

 

আরও পড়ুন:

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here