বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক: পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত ৭ কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। কোম্পানিগুলো হলো: ইউনিলিভার, আইএফআইসি ব্যাংক, পেনিনসুলা চিটাগং, ই-জেনারেশন, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং, সি-পার্ল এবং ক্রিষ্টাল ইন্স্যুরেন্স। আজ সোমবার কোম্পানিগুলোর পরিচালনা পর্ষদের সভায় কোম্পানির পর্ষদ এসব প্রতিবেদন অনুমোদন ও প্রকাশ করেছে।

ইউনিলিভার কনজ্যুমারঃ ইউনিলিভার কনজ্যুমার কেয়ার লিমিটেড চলতি হিসাববছরের প্রথম প্রান্তিকের (জানুয়ারি’২১-মার্চ’২১) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। 

হিসাববছরের প্রথম প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ১০ টাকা ২০ পয়সা। কন্টিনিউয়িং অপারেশন হিসেবে গত বছরের এই সময়ে ইপিএস ছিল ১৪ টাকা ৯৫ পয়সা। আর শুধু কোম্পানির হিসাবে গত বছরের একই সময়ে ইপিএস ছিল ১৪ টাকা ৯৭ পয়সা।

৩১ মার্চ, ২০২১ তারিখে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ১৩৩ টাকা ২৮ পয়সা।

আইএফআইসি ব্যাংক: আইএফআইসি ব্যাংক চলতি হিসাববছরের প্রথম প্রান্তিকের (জানুয়ারি’২১-মার্চ’২১) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। হিসাববছরের প্রথম প্রান্তিকে সহযোগী প্রতিষ্ঠানের আয়সহ ব্যাংকটির সমন্বিত শেয়ার প্রতি আয় (Consolidated EPS) হয়েছে ৪৬ পয়সা। গত বছরের একই সময়ে সমন্বিত ইপিএস ছিল ৩৭ পয়সা।

অন্যদিকে প্রথম প্রান্তিকে এককভাবে ব্যাংকটির শেয়ার প্রতি আয় (Solo EPS) হয়েছে ৪৪ পয়সা। গত বছরের একই সময়ে একক ইপিএস ছিল ৩৭ পয়সা। ৩১ মার্চ, ২০২১ তারিখে ব্যাংকটির সমন্বিত শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ১৭ টাকা ৫৭ পয়সা।

পেনিনসুলা চিটাগং: পেনিনসুলা চিটাগং চলতি হিসাববছরের তৃতীয় প্রান্তিকের (জানুয়ারি’২১-মার্চ’২১) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

হিসাববছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে তথা নয় মাসে (জুলাই’২০-মার্চ’২১) কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ৪৬ পয়সা, যা আগের বছর একই সময়ে ৪১ পয়সা ছিল। তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি ক্যাশ ফ্লো (এনওসিএফপিএস) ছিল ৩৯ পয়সা, যা গত বছরের একই সময়ে ৬৭ পয়সা ছিল।

৩১ মার্চ, ২০২১ তারিখে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি প্রকৃত সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ছিল ৩০ টাকা ৩৩ পয়সা।

ই-জেনারেশন: ই-জেনারেশন তৃতীয় প্রান্তিকের (জানুয়ারি,২১-মার্চ,২১) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

তৃতীয় প্রান্তিকের (জানুয়ারি-মার্চ,২১) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৪৬ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় ছিল ৫৪ পয়সা।

৯ মাসে (জুলাই,২০-মার্চ,২১) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ২৫ পয়সা।

আনোয়ার গ্যালভানাইজিং: আনোয়ার গ্যালভানাইজিং চলতি হিসাববছরের তৃতীয় প্রান্তিকের (জানুয়ারি’২১-মার্চ’২১) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

হিসাববছরের তৃতীয় প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ৪৪ পয়সা। গত বছরের একই সময়ে ইপিএস ছিল ৬৪ পয়সা।

তিন প্রান্তিক মিলিয়ে তথা নয় মাসে (জুলাই’২০-মার্চ’২১) কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় হয়েছে ২ টাকা ১২ পয়সা, যা আগের বছর একই সময়ে ১ টাকা ৫৯ পয়সা ছিল।

রয়েল টিউলিপ সি পার্ল রিসোর্ট: রয়েল টিউলিপ সি পার্ল রিসোর্ট তৃতীয় প্রান্তিকের (জানুয়ারি,২১-মার্চ,২১) অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। তৃতীয় প্রান্তিকের (জানুয়ারি-মার্চ,২১) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬০ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় ছিল ৯ পয়সা।

৯ মাসে (জুলাই,২০-মার্চ,২১) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ২০ পয়সা। গত অর্থবছরের একই সময়ে শেয়ার প্রতি আয় ছিল ৩৫ পয়সা।

ক্রিস্টাল ইন্স্যুরেন্স: ক্রিস্টাল ইন্স্যুরেন্স চলতি হিসাব বছরের প্রথম প্রান্তিকের অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

প্রথম প্রান্তিকের (জানুয়ারি-মার্চ’২১) কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ৬৩ পয়সা। আগের হিসাব বছরের একই সময়ে ইপিএস ছিল ৭৮ পয়সা।

ঢাকা/জেএইচ