০২:২২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

গরমে ক্লান্ত? শক্তি বাড়ানোর উপায় জেনে নিন

বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক:
  • আপডেট: ০৩:৩৫:৫৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১০ জুন ২০২৪
  • / ৪০৯১ বার দেখা হয়েছে

গরমের সময়ে ক্লান্ত বোধ করা স্বাভাবিক। কারণ এসময় আমাদের শরীর থেকে ঘামের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় লবণ ও পানির অনেকটাই বের হয়ে যায়। ফলস্বরূপ দেখা দেয় দুর্বলতা। বিশেষ করে তাপমাত্রা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে এই সমস্যা বাড়তে থাকে। তবে দুশ্চিন্তার কারণ নেই। গরমের সময়ে ক্লান্তি ও দুর্বলতা কাটিয়ে শক্তিশালী হয়ে ওঠার কিছু উপায়ও রয়েছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক-

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব

১. হাইড্রেশন বজায় রাখুন

ডিহাইড্রেশন ক্লান্তি এবং শক্তির মাত্রা হ্রাস করতে পারে, বিশেষ করে গরম আবহাওয়ায়। ঘামের মাধ্যমে হারানো খনিজ পূরণ করতে পানি এবং ইলেক্ট্রোলাইট-সমৃদ্ধ পানীয় যেমন ডাবের পানি বা স্পোর্টস ড্রিঙ্কস পান করতে পারেন। এছাড়া সারা দিন প্রচুর পরিমাণে তরল পান করতে হবে। প্রতিদিন কমপক্ষে ৮-১০ গ্লাস পানি পান করার লক্ষ্য রাখুন। আপনাকে যদি বাইরে থাকতে হয় বা শারীরিক পরিশ্রম করতে হয় তবে তরল পানের পরিমাণ বাড়াতে হবে।

২. হালকা ও পুষ্টিকর খাবার খান

হালকা, সতেজ ও পুষ্টিকর খাবার বেছে নিন যা আপনাকে ওজন না বাড়িয়েই শক্তি দেবে। প্রচুর পরিমাণে ফল এবং শাক-সবজি খান, যেগুলোতে পানি, প্রয়োজনীয় ভিটামিন এবং খনিজ রয়েছে। গ্রিলড চিকেন বা মাছের মতো চর্বিহীন প্রোটিন এবং অ্যাভোকাডো, বাদাম এবং অলিভ তেলের মতো উৎস থেকে স্বাস্থ্যকর চর্বি যুক্ত করুন। যা রক্তে শর্করার মাত্রা স্থিতিশীল করতে এবং দীর্ঘস্থায়ী শক্তি সরবরাহ করতে সাহায্য করবে। ভারী খাবার এড়িয়ে চলুন। কারণ গরমে এ ধরনের খাবার খেলে তা ক্লান্তি এবং অস্বস্তির কারণ হতে পারে।

আরও পড়ুন: পেঁপে খেলে যেসব পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হতে পারে

৩. নিয়মিত বিরতি এবং বিশ্রাম নিন

আপনার শরীরের সংকেত শুনুন। বিশ্রামকে অগ্রাধিকার দিন, বিশেষ করে দিনের উষ্ণতম সময়গুলোতে। শীতল ও সতেজ হওয়ার জন্য ছায়াযুক্ত বা শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত স্থানে বিশ্রাম নিন। মানসিক চাপ কমাতে গভীর শ্বাস, ধ্যান বা মৃদু স্ট্রেচিংয়ের মতো মননশীলতা ব্যায়ামের চর্চা করুন। শক্তির মাত্রা বাড়াতে এবং সামগ্রিক সুস্থতা বজায় রাখতে প্রতি রাতে পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমও গুরুত্বপূর্ণ।

৪. গরমে ব্যায়াম নয়

দিনের শীতল সময়গুলোতে ব্যায়াম করুন। যেমন ভোরে বা সন্ধ্যায়। এতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা এড়ানো সম্ভব হবে। বাইরের ব্যায়াম সম্ভব না হলে সাঁতার, যোগব্যায়াম বা ইনডোর সাইকেল চালানোর মতো ব্যায়াম বেছে নিন। আপনার শরীরের কথা শুনুন। অতিরিক্ত গরম এবং ক্লান্তি রোধ করার জন্য প্রয়োজন অনুসারে বিরতি নিন।

৫. সূর্য থেকে নিজেকে রক্ষা করুন

অতিরিক্ত রোদ আপনার শক্তির মাত্রা কমাতে এবং তাপ-সংক্রান্ত অসুস্থতার ঝুঁকি বাড়াতে পারে। যেমন ক্লান্তি এবং হিটস্ট্রোক। সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে নিজেকে রক্ষা করার জন্য বাইরে বের হলে হালকা এবং আরামদায়ক পোশাক পরুন যা আপনার ত্বককে ঢেকে রাখে, সাথে একটি চওড়া টুপি এবং সানগ্লাস পরুন। নিয়মিত উচ্চ এসপিএফযুক্ত সানস্ক্রিন লাগান, বিশেষ করে যদি বাইরে দীর্ঘ সময় থাকার প্রয়োজন হয়।

ঢাকা/এসএইচ

শেয়ার করুন

x

গরমে ক্লান্ত? শক্তি বাড়ানোর উপায় জেনে নিন

আপডেট: ০৩:৩৫:৫৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১০ জুন ২০২৪

গরমের সময়ে ক্লান্ত বোধ করা স্বাভাবিক। কারণ এসময় আমাদের শরীর থেকে ঘামের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় লবণ ও পানির অনেকটাই বের হয়ে যায়। ফলস্বরূপ দেখা দেয় দুর্বলতা। বিশেষ করে তাপমাত্রা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে এই সমস্যা বাড়তে থাকে। তবে দুশ্চিন্তার কারণ নেই। গরমের সময়ে ক্লান্তি ও দুর্বলতা কাটিয়ে শক্তিশালী হয়ে ওঠার কিছু উপায়ও রয়েছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক-

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব

১. হাইড্রেশন বজায় রাখুন

ডিহাইড্রেশন ক্লান্তি এবং শক্তির মাত্রা হ্রাস করতে পারে, বিশেষ করে গরম আবহাওয়ায়। ঘামের মাধ্যমে হারানো খনিজ পূরণ করতে পানি এবং ইলেক্ট্রোলাইট-সমৃদ্ধ পানীয় যেমন ডাবের পানি বা স্পোর্টস ড্রিঙ্কস পান করতে পারেন। এছাড়া সারা দিন প্রচুর পরিমাণে তরল পান করতে হবে। প্রতিদিন কমপক্ষে ৮-১০ গ্লাস পানি পান করার লক্ষ্য রাখুন। আপনাকে যদি বাইরে থাকতে হয় বা শারীরিক পরিশ্রম করতে হয় তবে তরল পানের পরিমাণ বাড়াতে হবে।

২. হালকা ও পুষ্টিকর খাবার খান

হালকা, সতেজ ও পুষ্টিকর খাবার বেছে নিন যা আপনাকে ওজন না বাড়িয়েই শক্তি দেবে। প্রচুর পরিমাণে ফল এবং শাক-সবজি খান, যেগুলোতে পানি, প্রয়োজনীয় ভিটামিন এবং খনিজ রয়েছে। গ্রিলড চিকেন বা মাছের মতো চর্বিহীন প্রোটিন এবং অ্যাভোকাডো, বাদাম এবং অলিভ তেলের মতো উৎস থেকে স্বাস্থ্যকর চর্বি যুক্ত করুন। যা রক্তে শর্করার মাত্রা স্থিতিশীল করতে এবং দীর্ঘস্থায়ী শক্তি সরবরাহ করতে সাহায্য করবে। ভারী খাবার এড়িয়ে চলুন। কারণ গরমে এ ধরনের খাবার খেলে তা ক্লান্তি এবং অস্বস্তির কারণ হতে পারে।

আরও পড়ুন: পেঁপে খেলে যেসব পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হতে পারে

৩. নিয়মিত বিরতি এবং বিশ্রাম নিন

আপনার শরীরের সংকেত শুনুন। বিশ্রামকে অগ্রাধিকার দিন, বিশেষ করে দিনের উষ্ণতম সময়গুলোতে। শীতল ও সতেজ হওয়ার জন্য ছায়াযুক্ত বা শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত স্থানে বিশ্রাম নিন। মানসিক চাপ কমাতে গভীর শ্বাস, ধ্যান বা মৃদু স্ট্রেচিংয়ের মতো মননশীলতা ব্যায়ামের চর্চা করুন। শক্তির মাত্রা বাড়াতে এবং সামগ্রিক সুস্থতা বজায় রাখতে প্রতি রাতে পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমও গুরুত্বপূর্ণ।

৪. গরমে ব্যায়াম নয়

দিনের শীতল সময়গুলোতে ব্যায়াম করুন। যেমন ভোরে বা সন্ধ্যায়। এতে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা এড়ানো সম্ভব হবে। বাইরের ব্যায়াম সম্ভব না হলে সাঁতার, যোগব্যায়াম বা ইনডোর সাইকেল চালানোর মতো ব্যায়াম বেছে নিন। আপনার শরীরের কথা শুনুন। অতিরিক্ত গরম এবং ক্লান্তি রোধ করার জন্য প্রয়োজন অনুসারে বিরতি নিন।

৫. সূর্য থেকে নিজেকে রক্ষা করুন

অতিরিক্ত রোদ আপনার শক্তির মাত্রা কমাতে এবং তাপ-সংক্রান্ত অসুস্থতার ঝুঁকি বাড়াতে পারে। যেমন ক্লান্তি এবং হিটস্ট্রোক। সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে নিজেকে রক্ষা করার জন্য বাইরে বের হলে হালকা এবং আরামদায়ক পোশাক পরুন যা আপনার ত্বককে ঢেকে রাখে, সাথে একটি চওড়া টুপি এবং সানগ্লাস পরুন। নিয়মিত উচ্চ এসপিএফযুক্ত সানস্ক্রিন লাগান, বিশেষ করে যদি বাইরে দীর্ঘ সময় থাকার প্রয়োজন হয়।

ঢাকা/এসএইচ