০১:৩৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ এপ্রিল ২০২৪

পুঁজিবাজারে বইছে সুবাতাস

বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক:
  • আপডেট: ০৩:২১:০০ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ মার্চ ২০২৩
  • / ৪৫৩৫ বার দেখা হয়েছে

ফাইল ফটো

আজ সোমবার (৬ মার্চ) দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের উত্থানে লেনদেনের সমাপ্তি হয়েছে। আজ ডিএসইতে মূল্য সূচক ৯ পয়েন্ট বাড়ার সাথে লেনদেনও সাত’শ কোটির বেশি হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (২ মার্চ) পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১৬৯ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের ফ্লোর প্রাইস (শেয়ার দর কমার সর্বনিম্নসীমা) বেঁধে দিয়ে নির্দেশনা কার্যকর হওয়ার পর থেকেই পুঁজিবাজারে বইছে সুবাতাস। অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) সূচক বাড়লেও লেনেদেন সামান্য কমেছে। ডিএসই-সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব

সাম্প্রতিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত ফেব্রুয়ারী থেকেই বাজার ছিল এক দরনের অস্থিরতা্। ফলে ক্রমেই ছিল লেনদেন। লেনদেন কমতে কমতে গত ২৩ ফেব্রুয়ারী ২২২ কোটিতে এসে দাঁড়ায়। ধারাবাহিক এই পতন রুখতে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) গত বৃহস্পতিবার (২ মার্চ) পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১৬৯ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের ফ্লোর প্রাইস (শেয়ার দর কমার সর্বনিম্নসীমা) বেঁধে দিয়ে নির্দেশনা জারি করে। এর তিন কার্যদিবসের মধ্য দুই কার্যদিবসে অর্থাৎ বৃহস্পতিবার (২ মার্চ) ডিএসইতে ৪২৭ কোটি ৭২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। রোববার (২ মার্চ) ডিএসইতে ৬৬২ কোটি ৩৬ লাখ টাকা লেনদেন হয়েছে। আজ ডিএসইতে ৭২৭ কোটি ৩৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা গত কার্যদিবস থেকে ৬৫ কোটি ২ লাখ টাকা বেশি লেনদেন হয়েছে। গত কার্যদিবসে ডিএসইতে ৬৬২ কোটি ৩৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল।

বিশ্লেষকদের মতে, মূলত ১৬৯ কোম্পানিতে ফ্লোর প্রাইস আরপের কারণেই ঘুরে দাঁড়িয়েছে পুঁজিবাজার। কেননা ফ্লোর প্রাইস নিয়ে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে এক ধরনের আতংক ছিল। যা গত বৃহস্পতিবার কমিশন দূর করে দিয়েছে। এখন সূচক ও লেনদেনের এই উর্দ্ধগতি কত দিন স্থায়ী হয় এটাই দেখার বিষয়।

আরও পড়ুন: নাম পরিবর্তন করেছে ন্যাশনাল পলিমার

আজম সিকিউরিটিজের বিনিয়োগকারী রাশেদুল বলেন, ফ্লোর প্রাইস আরপ করে কমিশন আমার জীবন বাঁচিয়ে দিয়েছে। কেননা আমার কেনা শেয়ার যদিও ফ্লোর প্রাইসে আটকে আছে কিন্তু যদি ফ্লোর প্রাইস না থাকতো তবে আমার বিনিয়োগের সব টাকাই ফোর্সসেলের কারণে শেষ হয়ে আমি পথে বসতাম।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, ডিএসই প্রধান বা ডিএসইএক্স সূচক ৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৬ হাজার ২৫৯ পয়েন্টে। অন্য সূচকগুলোর মধ্যে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ৩৬১ পয়েন্টে এবং ডিএস৩০ সূচক ০ পয়েন্ট বেড়ে আগের অবস্থানেই দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ২২৫ পয়েন্টে।

আজ ডিএসইতে ৩৪৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১০০টির, কমেছে ৬৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৭৪টির।

আরও পড়ুন: ডিভিডেন্ড ঘোষণার তারিখ জানিয়েছে বিডি ফাইন্যান্স

অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক ২৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৮ হাজার ৪৩০ পয়েন্টে। আজ সিএসইতে ১৬ কোটি ৪৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা গত কার্যদিবস থেকে ১৬ লাখ টাকা কম। গত কার্যদিবসে সিএসইতে ১৬ কোটি ৬৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

ঢাকা/এসএ

শেয়ার করুন

x
English Version

পুঁজিবাজারে বইছে সুবাতাস

আপডেট: ০৩:২১:০০ অপরাহ্ন, সোমবার, ৬ মার্চ ২০২৩

আজ সোমবার (৬ মার্চ) দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের উত্থানে লেনদেনের সমাপ্তি হয়েছে। আজ ডিএসইতে মূল্য সূচক ৯ পয়েন্ট বাড়ার সাথে লেনদেনও সাত’শ কোটির বেশি হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (২ মার্চ) পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১৬৯ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের ফ্লোর প্রাইস (শেয়ার দর কমার সর্বনিম্নসীমা) বেঁধে দিয়ে নির্দেশনা কার্যকর হওয়ার পর থেকেই পুঁজিবাজারে বইছে সুবাতাস। অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) সূচক বাড়লেও লেনেদেন সামান্য কমেছে। ডিএসই-সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব

সাম্প্রতিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, গত ফেব্রুয়ারী থেকেই বাজার ছিল এক দরনের অস্থিরতা্। ফলে ক্রমেই ছিল লেনদেন। লেনদেন কমতে কমতে গত ২৩ ফেব্রুয়ারী ২২২ কোটিতে এসে দাঁড়ায়। ধারাবাহিক এই পতন রুখতে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) গত বৃহস্পতিবার (২ মার্চ) পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ১৬৯ কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের ফ্লোর প্রাইস (শেয়ার দর কমার সর্বনিম্নসীমা) বেঁধে দিয়ে নির্দেশনা জারি করে। এর তিন কার্যদিবসের মধ্য দুই কার্যদিবসে অর্থাৎ বৃহস্পতিবার (২ মার্চ) ডিএসইতে ৪২৭ কোটি ৭২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। রোববার (২ মার্চ) ডিএসইতে ৬৬২ কোটি ৩৬ লাখ টাকা লেনদেন হয়েছে। আজ ডিএসইতে ৭২৭ কোটি ৩৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা গত কার্যদিবস থেকে ৬৫ কোটি ২ লাখ টাকা বেশি লেনদেন হয়েছে। গত কার্যদিবসে ডিএসইতে ৬৬২ কোটি ৩৬ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছিল।

বিশ্লেষকদের মতে, মূলত ১৬৯ কোম্পানিতে ফ্লোর প্রাইস আরপের কারণেই ঘুরে দাঁড়িয়েছে পুঁজিবাজার। কেননা ফ্লোর প্রাইস নিয়ে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে এক ধরনের আতংক ছিল। যা গত বৃহস্পতিবার কমিশন দূর করে দিয়েছে। এখন সূচক ও লেনদেনের এই উর্দ্ধগতি কত দিন স্থায়ী হয় এটাই দেখার বিষয়।

আরও পড়ুন: নাম পরিবর্তন করেছে ন্যাশনাল পলিমার

আজম সিকিউরিটিজের বিনিয়োগকারী রাশেদুল বলেন, ফ্লোর প্রাইস আরপ করে কমিশন আমার জীবন বাঁচিয়ে দিয়েছে। কেননা আমার কেনা শেয়ার যদিও ফ্লোর প্রাইসে আটকে আছে কিন্তু যদি ফ্লোর প্রাইস না থাকতো তবে আমার বিনিয়োগের সব টাকাই ফোর্সসেলের কারণে শেষ হয়ে আমি পথে বসতাম।

বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, ডিএসই প্রধান বা ডিএসইএক্স সূচক ৯ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ৬ হাজার ২৫৯ পয়েন্টে। অন্য সূচকগুলোর মধ্যে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ১ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ৩৬১ পয়েন্টে এবং ডিএস৩০ সূচক ০ পয়েন্ট বেড়ে আগের অবস্থানেই দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ২২৫ পয়েন্টে।

আজ ডিএসইতে ৩৪৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১০০টির, কমেছে ৬৫টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৭৪টির।

আরও পড়ুন: ডিভিডেন্ড ঘোষণার তারিখ জানিয়েছে বিডি ফাইন্যান্স

অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সূচক ২৮ পয়েন্ট বেড়ে অবস্থান করছে ১৮ হাজার ৪৩০ পয়েন্টে। আজ সিএসইতে ১৬ কোটি ৪৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা গত কার্যদিবস থেকে ১৬ লাখ টাকা কম। গত কার্যদিবসে সিএসইতে ১৬ কোটি ৬৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

ঢাকা/এসএ