০৯:৫৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪

বাজার মূলধন কমেছে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা

বিজনেস জার্নাল প্রতিবেদক:
  • আপডেট: ১২:২১:০৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মার্চ ২০২৩
  • / ৪২৪২ বার দেখা হয়েছে

ফাইল ফটো

সদ্য সমাপ্ত সপ্তাহে (১২ থেকে ১৬ মার্চ) দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বাজার মূলধন সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকার বেশি কমেছে। বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসই’র মূল্য সূচকের পতনের সাথে টাকার অংকে লেনদেনেও ধস নেমেছে। সপ্তাহজুড়ে ডিএসইর লেনদেন কমেছে ১.৭৪ শতাংশ। ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব

গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসের লেনদেন শেষে ডিএসই’র বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৬১ হাজার ৮৯৪ কোটি ৬৭ লাখ ৪ হাজার ১৬ টাকা। যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৭ লাখ ৬৫ হাজার ৫৫৯ কোটি ৫৯ লাখ ৭ হাজার ৯০ টাকা। অর্থাৎ গত সপ্তাহে ডিএসই’র বাজার মূলধন কমেছে ৩ হাজার ৬৯৬ কোটি ৯২ লাখ ৩ হাজার ৭৪ টাকা।

আরও পড়ুন: বগুড়ায় বিএসইসির বিনিয়োগ শিক্ষা কনফারেন্স শুরু

গত সপ্তাহে ৫ কর্মদিবসে ডিএসইতে মোট ৩৮৮টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ১৫টি কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ১৪১টির, আর অপরিবর্তিত ছিল ২২২টির।

ফ্লোর প্রাইসের কারণে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়নি। এ কারণে লেনদেন হওয়া অধিকাংশ শেয়ারের দাম কমায়

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইর প্রধান সূচক আগের সপ্তাহের চেয়ে ৩৯ দশমিক ৯৩ পয়েন্ট কমে ৬ হাজার ২২০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

ডিএসইর অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএস সূচক ৫ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ৩৫৬ পয়েন্টে ও ডিএস-৩০ সূচক আগের সপ্তাহের চেয়ে ৮ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ২১৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ৫৪০ কোটি ১০ লাখ ২৭ হাজার ৯৪০ টাকা। এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ২ হাজার ৫৮৪ কোটি ৯৭ লাখ ৯০ হাজার ৯৮৫ টাকা। অর্থাৎ ৪৪ কোটি ৮৭ লাখ ৬৩ হাজার ৪৫ টাকা লেনদেন কমেছে, শতাংশের হিসাবে ১ দশমিক ৭৪ শতাংশ কমেছে।

গত সপ্তাহে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির লিমিটেডের শেয়ার। এরপর যথাক্রমে লেনদেন হয়েছে জেনেক্স ইনফোসেস, রয়েল টিউলিপ সি পার্ল বিচ রিসোর্ট অ্যান্ড স্পা, মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, এডিএন টেলিকম, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ, আমরা নেটওয়ার্কস, বিডিকম অনলাইন, ইস্টার্ন হাউজিং এবং বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন লিমিটেডের শেয়ার।

দেশের অপর পুঁজিবাজার সিএসইতে লেনদেনে ছিল একই চিত্র। বিদায়ী সপ্তাহে সিএসইর সার্বিক সূচক ৯৮ পয়েন্ট কমে ১৮ হাজার ৩৫২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। এ সময়ে লেনদেন হয়েছে ৫৭ কোটি ১৩ লাখ ৫৮ হাজার ৩১৮ টাকা। এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৬৩ কোটি ৮ লাখ ২৩ হাজার ৩৫৯ টাকা।

লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৮টির, কমেছে ৮৩টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৬৫টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম।

ঢাকা/টিএ

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুন

x
English Version

বাজার মূলধন কমেছে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা

আপডেট: ১২:২১:০৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মার্চ ২০২৩

সদ্য সমাপ্ত সপ্তাহে (১২ থেকে ১৬ মার্চ) দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বাজার মূলধন সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকার বেশি কমেছে। বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসই’র মূল্য সূচকের পতনের সাথে টাকার অংকে লেনদেনেও ধস নেমেছে। সপ্তাহজুড়ে ডিএসইর লেনদেন কমেছে ১.৭৪ শতাংশ। ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

অর্থনীতি ও শেয়ারবাজারের গুরুত্বপূর্ন সংবাদ পেতে আমাদের সাথেই থাকুন: ফেসবুকটুইটারলিংকডইনইন্সটাগ্রামইউটিউব

গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসের লেনদেন শেষে ডিএসই’র বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৬১ হাজার ৮৯৪ কোটি ৬৭ লাখ ৪ হাজার ১৬ টাকা। যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৭ লাখ ৬৫ হাজার ৫৫৯ কোটি ৫৯ লাখ ৭ হাজার ৯০ টাকা। অর্থাৎ গত সপ্তাহে ডিএসই’র বাজার মূলধন কমেছে ৩ হাজার ৬৯৬ কোটি ৯২ লাখ ৩ হাজার ৭৪ টাকা।

আরও পড়ুন: বগুড়ায় বিএসইসির বিনিয়োগ শিক্ষা কনফারেন্স শুরু

গত সপ্তাহে ৫ কর্মদিবসে ডিএসইতে মোট ৩৮৮টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে ১৫টি কোম্পানির শেয়ারের দাম বেড়েছে, কমেছে ১৪১টির, আর অপরিবর্তিত ছিল ২২২টির।

ফ্লোর প্রাইসের কারণে অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়নি। এ কারণে লেনদেন হওয়া অধিকাংশ শেয়ারের দাম কমায়

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইর প্রধান সূচক আগের সপ্তাহের চেয়ে ৩৯ দশমিক ৯৩ পয়েন্ট কমে ৬ হাজার ২২০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

ডিএসইর অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইএস সূচক ৫ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ৩৫৬ পয়েন্টে ও ডিএস-৩০ সূচক আগের সপ্তাহের চেয়ে ৮ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ২১৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২ হাজার ৫৪০ কোটি ১০ লাখ ২৭ হাজার ৯৪০ টাকা। এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ২ হাজার ৫৮৪ কোটি ৯৭ লাখ ৯০ হাজার ৯৮৫ টাকা। অর্থাৎ ৪৪ কোটি ৮৭ লাখ ৬৩ হাজার ৪৫ টাকা লেনদেন কমেছে, শতাংশের হিসাবে ১ দশমিক ৭৪ শতাংশ কমেছে।

গত সপ্তাহে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির লিমিটেডের শেয়ার। এরপর যথাক্রমে লেনদেন হয়েছে জেনেক্স ইনফোসেস, রয়েল টিউলিপ সি পার্ল বিচ রিসোর্ট অ্যান্ড স্পা, মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, এডিএন টেলিকম, অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ, আমরা নেটওয়ার্কস, বিডিকম অনলাইন, ইস্টার্ন হাউজিং এবং বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন লিমিটেডের শেয়ার।

দেশের অপর পুঁজিবাজার সিএসইতে লেনদেনে ছিল একই চিত্র। বিদায়ী সপ্তাহে সিএসইর সার্বিক সূচক ৯৮ পয়েন্ট কমে ১৮ হাজার ৩৫২ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। এ সময়ে লেনদেন হয়েছে ৫৭ কোটি ১৩ লাখ ৫৮ হাজার ৩১৮ টাকা। এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৬৩ কোটি ৮ লাখ ২৩ হাজার ৩৫৯ টাকা।

লেনদেন হওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে দাম বেড়েছে ১৮টির, কমেছে ৮৩টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৬৫টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম।

ঢাকা/টিএ

Print Friendly, PDF & Email