আগামীকাল মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) থেকে পুঁজিবাজারে লেনদেনের জন্য বেনিফিশিয়ারি ওনার্স অ্যাকাউন্ট (বিও হিসাব) খোলা যাবে। দেশি ও বিদেশি উভয় বিনিয়োগকারীরা এই বিও হিসাব খুলতে পারবেন।

পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে অনলাইনে বিও হিসাব খোলার বিষয়টি উদ্বোধন করা হবে। দুবাইতে বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল ইসলাম বিদেশি এবং বিএসইসির কার্যালয় থেকে কমিশনার মো. শেখ সামসুদ্দিন আহম্মেদ দেশি বিনিয়োগকারীদের অনলাইন বিও হিসাব উদ্বোধন করবেন।

এ উপলক্ষে মঙ্গলবার বেলা ৩টায় বিএসইসির মাল্টিপারপাস হলে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে বলেও জানান বিএসইসির মুখপাত্র।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, একজন বিনিয়োগকারীকে নির্ধারিত ওয়েবসাইটে গিয়ে নিজের মোবাইল নম্বর ও ই–মেইল দিয়ে বিও হিসাব খোলার প্রথম ধাপে লগ–ইন করতে হবে। সঙ্গে সঙ্গে ওই বিনিয়োগকারীর মোবাইল ও ই–মেইলে একটি গোপন পাসওয়ার্ড চলে যাবে। সেটি একবারই ব্যবহার করা যাবে, এ কারণে সেটি ওটিপি বা ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড হিসেবে পরিচিত। ওই পাসওয়ার্ড দিয়ে পরবর্তী ধাপে যেতে হবে ওই একজন বিনিয়োগকারীকে। কয়েকটি ধাপে বিনিয়োগকারীর জাতীয় পরিচয়পত্র, ব্যাংক হিসাব নাম্বার, ব্যাংক চেকের কপি, বিনিয়োগকারীর ছবি, স্বাক্ষরের স্ক্যান কপি আপলোড করতে হবে।

এমনকি বিনিয়োগকারীকে বেছে নিতে হবে তার পছন্দের ব্রোকারেজ হাউস। এরপর ওই আবেদন চলে যাবে বিনিয়োগকারীর পছন্দের ব্রোকারেজ হাউসে। ব্রোকারেজ হাউসের পক্ষ থেকে যাচাই–বাছাইয়ের পর সব ঠিকঠাক থাকলে সেই আবেদন গ্রহণ করা হবে। তখন স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে একটি নোটিফিকেশন চলে যাবে বিনিয়োগকারীর মোবাইল ও ই–মেইলে। সেই নোটিফিকেশন পাওয়ার পর বিনিয়োগকারীকে বিও ফি জমা দিতে হবে। বিও ফি জমা হওয়ার পর সংশ্লিষ্ট ব্রোকারেজ হাউস সিডিবিএলের সিস্টেমে তা আপলোড করে দেবে। আর বিনিয়োগকারী মোবাইল ও ই–মেইলে পেয়ে যাবেন
সাকসেসফুল’ বার্তা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here