পোলিশ মডেল কাসিয়া লেনার্ডের সঙ্গে ১৫ মাস প্রেম করেছেন জার্মানির বায়ার্ন মিউনিখ ডিফেন্ডার জেরম বুয়াটেং। মঙ্গলবার তাদের ব্রেকআপের এক সপ্তাহ পরে বার্লিনের বাসা থেকে লেনার্ডের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। খবর শুনে ক্লাবের সঙ্গে কাতারে থাকা বুয়াটেং মিউনিখে ফিরছেন।

পুলিশ ধারণা করছেন, ২৫ বছর বয়সী পোলিশ এই মডেল আত্মহত্যা করেছেন। সেজন্য তার মৃত্যুকে হত্যা বিবেচনা করে কোন তদন্ত করা হচ্ছে না বলে দেশটির আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী জানিয়েছে।

বুয়াটেংয়ের সঙ্গে তার প্রেমিকার মাস খানেক ধরে ঝামেলা চলছিল। কিছুদিন আগে বুয়াটেং তার ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে দুর্ঘটনায় পড়েন। তার বিরুদ্ধে অতিরিক্ত মদ পান করে গাড়ি চালানোর অভিযোগ আনা হয়। পরে বুয়াটেং ব্যক্তিগত ঝামেলায় আছেন বলে জানান।

এরপর ইনস্টাগ্রামে ব্রেকআপের কথা জানিয়ে লেখেন, ‘আমার দায়িত্ব আমাকেই নিতে হবে। নিজের ভালো বুঝতে হবে। পরিবারের প্রতি খেয়াল রাখতে হবে। তাদের কথা ভাবতে হবে।’ এছাড়া প্রেম নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এ নিয়ে আমাকে কথা বলতে হবে। আমার মনটা একটু শান্ত হতে দিন। কিছুটা সময় দিন।’

পরে বুয়াটেং ব্রেকআপের কারণ নিয়ে বলেন, ‘সে সবসময় আমাকে ধ্বংস করে দেওয়ার ও আমার খ্যাতি নষ্ট করার হুমকি দিতো। আমার বাচ্চাদের থেকে দূরে সরিয়ে রাখার ও সম্পর্ক শেষ করার চেষ্টা করতো। তাতে আমি মারধর করি বলি অভিযোগ আনার কথা বলবো। কারণ সে জানতো, আমার সাবেক স্ত্রী আমার বিরুদ্ধে ওই একই (মারধরের) অভিযোগ এনেছিলেন।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here