যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণাঞ্চলে শীতকালীন ঝড়ে অন্তত ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই ঝড়ে ও প্রবল ঠাণ্ডার মধ্যে বিদ্যুতের চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় টেক্সাস রাজ্যের বিস্তৃত এলাকাজুড়ে বিদ্যুৎ বিপর্যয় ঘটেছে। বিদ্যুৎবিহীন অবস্থার মধ্যে টেক্সাসের সুগার ল্যান্ডে একটি বাড়িতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় চারজনের মৃত্যু হয়।

একই ঝড় থেকে তৈরি হওয়া একটি টর্নেডোতে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকালে নর্থ ক্যারোলাইনায় তিনজনের মৃত্যু। এতে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। সেখানে উদ্ধার কাজ চলমান রয়েছে বলে জানিয়েছেন রাজ্যটির কর্মকর্তারা। খবর রয়টার্সের।

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় আবহাওয়া বিভাগের আবহাওয়াবিদ লারা প্যাগানো জানান, উত্তর মেরু থেকে আসা একটি শৈত্য প্রবাহের কারণে দেশজুড়ে তাপমাত্রা মঙ্গলবার রেকর্ড নিচে নেমে যায়। এ দিন নেব্রাস্কার লিঙ্কনে তাপমাত্রা মাইনাস ৩৫ সেলিসিয়াসে নেমে যায়, এতে ১৯৭৮ সালের মাইনাস ২৭ সেলসিয়াসের রেকর্ড ভেঙে যায়।

দেশটির জাতীয় আবহাওয়া বিভাগ (এনডব্লিউএস) জানিয়েছে, টেক্সাস, লুইজিয়ানা, কেনটাকি ও মিজৌরিসহ দেশটির ৭৩ শতাংশেরও বেশি এলাকা তুষারের নিচে ঢাকা পড়েছে এবং ১৫ কোটিরও বেশি লোক শীতকালীন ঝড়ের সতর্কতার মধ্যে আছেন।

 

এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, বেশি ক্ষতিগ্রস্ত রাজ্যগুলোকে যেকোনো জরুরি সহায়তা দিতে কেন্দ্রীয় সরকার প্রস্তুত বলে গভর্নরদের আশ্বস্ত করেছেন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

এদিকে প্রবল ঠাণ্ডার কারণে যুক্তরাষ্ট্রের বিশাল এলাকাজুড়ে করোনাভাইরাস টিকাদান কর্মসূচী ও টিকা সরবরাহ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে, আগামী শনিবারের আগে এ পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here